গতকাল তৈরী হলো মোট ১২ টি বিশ্ব রেকর্ড, ভাঙলো দাদার রেকর্ডও!

বিরাট এবং রাহানের হাফ সেঞ্চুরি ভারতকে ন্যাটিংহ্যামের তৃতীয় টেস্টের প্রথম দিনের খেলার শেষে ৩০০ রানে পৌঁছতে সাহায্য করে। কিন্তু আরও দুটি উইকেট থাকা মানে এটাই দাঁড়ায় যে এই ম্যাচের এখনও যথেষ্ট ভারসাম্য রয়েছে, কারণ এই ম্যাচে অভিষেককারী দিনের খেলা শেষ হওয়া পর্যন্ত এখনও অপরাজিত রয়েছেন। টস জিতে এবং প্রথম বল করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর, ইংল্যান্ড দুর্দান্ত শুরুয়াত উপভোগ করতে পারে নি, কিন্তু ক্রিস ওকসের লাঞ্চের আগে ভারতীয় টপ অর্ডারকে ভাঙার পর এটা মনে হতে থাকে যে জো রুট সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

কিন্তু অধিনায়ক এবং সহঅধিনায়কের চতুর্থ উইকেটে ১৫৯ রানের পার্টনারশিপ ভারতের জন্য সঠিক প্ল্যাটফর্ম গড়ে দেয়। কিন্তু শেষ দিকে দুটি উইকেট চলে যাওয়ায় ভারত দিনের শেষে ৩০৭/৬ স্কোরে খেলা শেষ করে। এখানে ট্রেন্টব্রিজের তৃতীয় টেস্টে বেশ কিছু ইন্টারেস্টিং স্ট্যাটিস্টিক্যাল হাইলাইট রইল আপনাদের জন্য।

০—আর কোনও ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির চেয়ে বেশি বাইরে রান করতে পারেন নি। বিরাটের আগে এই রেকর্ড ছিল সৌরভ গাঙ্গুলীর নামে, যিনি ২৮টি ম্যাচে ৪৩ গড়ে তিনটি সেঞ্চুরি এবং ১১টি হাফ সেঞ্চুরির সাহায্যে ১৬৯৩ রান করেছিলেন।

১—ঋষভ পন্থ প্রথম ভারতীয় প্লেয়ার হিসেবে ছয় মেরে নিজের প্রথম রান করেন।

২—এই মুহুর্তে বিরাট কোহলি দ্বিতীয় ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে ইংল্যান্ডে সবচেয়ে বেশিবার ফিফটি প্লাস স্কোর করলেন। তিনি ক্রিকেটের সমস্ত ফর্ম্যাট মিলিয়ে মোট ৮টি ফিফটি প্লাস স্কোর করেছেন, একমাত্র এম ধোনিই (১০) তার আগে রয়েছেন।


২—এটা এই নিয়ে দ্বিতীয়বার যখন টেস্টে বিরাট কোহলি ৯০ এর ঘরে আউট হলেন।

৩— ট্রেন্টব্রিজে তৃতীয় টেস্টের প্রথম দিনের খেলার শেষে ভারতের ৩০৭ রান, প্রথমে ব্যাট করতে নেমে প্রথমদিনের খেলার শেষে ভারতের তৃতীয় সর্বোচ্চ স্কোর এশিয়ার বাইরে। ওয়েলিংটনে ২০০৯ এ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩৭৫ এবং ২০০১ এ দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ব্লুমফন্টনে ৩৭২ রান তাদের এর আগে এশিয়ার বাইরে প্রথম দিনের খেলার শেষে সবচেয়ে বেশি রান।

৪—অধিনায়ক হিসেবে মাত্র পাঁচটি ইনিংসের পর ইতিমধ্যেই কোহলি চতুর্থ স্থানে রয়েছে ইংল্যান্ডে কোনও ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে টেস্টে সবচেয়ে বেশি রান করার তালিকায়। বিরাটের চেয়ে একমাত্র এমএস ধোনি, মহম্মদ আজহারউদ্দিন এবং সৌরভ গাঙ্গুলী বেশি রান করেছেন।

৫—টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে পঞ্চম সবচেয়ে তরুণ উইকেটকিপার হিসেবে ভারতের হয়ে টেস্টে অভিষেক করলেন ঋষভ পন্থ। তিনি ২০ বছর ৩১৮ দিন বয়েসে ভারতের হয়ে টেস্টে অভিষেক করলেন। এর আগে এই সবচেয়ে তরুণ ভারতীয় উইকেটকিপার হিসেবে টেস্টে অভিষেক করার রেকর্ড ছিল পার্থিব প্যাটেলের নামে। তিনি ১৭ বছর ১৫২ দিন বয়েসে ভারতের হয়ে টেস্ট অভিষেক করেছিলেন।

১২—টেস্টের ইতিহাসে, পন্থ মাত্র দ্বাদশ প্লেয়ার হিসেবে টেস্টে নিজের প্রথম রান ছয় মেরে করলেন। এছাড়াও তিনি নিউজিল্যান্ডের মার্ক ক্রেগ (প্রথম বল) এবং অস্ট্রেলিয়ার এরিক ফ্রিম্যানের (দ্বিতীয় বল) পর তৃতীয় প্লেয়ার হিসেবে তার প্রথম স্কোরিং শটে ছয় মারলেন তার খেলা প্রথম দুটি বলে।

১০০—মুরলী ধরনের পর দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ভারতের বিরুদ্ধে ১০০ উইকেট নেওয়া বোলার হলেন জেমস অ্যাণ্ডারসন। এছাড়াও তিনি প্রথম ইংল্যান্ড বোলার হিসেবে দুটি আলাদা দলের বিরুদ্ধে ১০০ উইকেট নিয়েছেন।

৩০৭– ভারতের ৩০৭/৬ রান ইংল্যান্ডে টেস্টের প্রথম দিনের শেষে তাদের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান। ভারতের ইংল্যাণ্ডের মাটিতে প্রথম দিনের শেষে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড ৩২৪ রান, যা ১৯৯০ সালে ওভালে করেছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: