জোতিষী বলে দিলেন কোহলির ভবিষ্যৎ, জিতবেন কি বিশ্বকাপ?

বিরাট কোহলির ঝুলিতে উঠতে চলেছে নতুন উপহার। চলতি বছরে একের পর এক মাইলস্টোন স্পর্শ করবেন টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক বিরাট কোহলি। নতুন বিজ্ঞাপনের চুক্তি তো আছেই। সঙ্গে ভেঙে দেবেন মাস্টারব্লাস্টারের ১০০ সেঞ্চুরির রেকর্ডও। এমনই দাবি করেছেন স্বনামধন্য জ্যোতিষী নরেন্দ্র বুন্দের।

নরেন্দ্র নাগপুরের বাসিন্দা। পেশায় ক্রিকেট সংক্রান্ত জ্যোতিষ চর্চা। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির একদিনের ক্রিকেট কেরিয়ার নিয়ে যতই প্রশ্ন উঠে যাক, নরেন্দ্রর ভবিষ্যদ্বাণী, ২০১৯-এর বিশ্বকাপে তিনি খেলবেন। শুধু তাই নয়, ‘২০১৮ সালে ক্রিকেটে সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক চুক্তি সই করবেন বিরাট। অনেকটা সচিন তেন্ডুলকরের, মার্ক মাসকেরাহনেসে’র ওয়ার্ল্ডটেলের চুক্তির সঙ্গে তুলনা করা যেতে পারে। যদিও আজকের দিনে টাকার অঙ্কটা অনেক বেশি হবে এবং সেটাই স্বাভাবিক।’

নরেন্দ্র আরও বলেছেন, এ বছরই ক্রিকেটের ইতিহাসে নজিরবিহীন এক বাণিজ্যিক চুক্তি করবেন বিরাট। তাতে যে অর্থ তিনি পাবেন তা ক্রিকেট দুনিয়ার কল্পনাতীত। বিরাটের বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে। তাই ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার মত বিদেশ সফরেও সাফল্য পাবেন তিনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে বলেছিলেন গুরুতর চোট পাবেন সচীন। সেই কথা মিলেছে। টেনিস এলবোর চোট প্রায় পেড়ে ফেলেছিল সচীনকে। বলেছিলেন ২০১১ বিশ্বকাপ জিতবে ভারত। হ্যাঁ, মিলেছে। সৌরভের কামব্যাক নিয়েও আগাম বলেছিলেন। এবং আশ্চর্যের বিষয় সেটাও মিলিয়ে দিয়েছিলেন। জাতীয় দলে ফিরে এসেছিলেন দাদা। এবার বিরাট কোহলিকে নিয়ে ভবিষ্যৎবাণী করলেন নরেন্দ্র। তাঁর এই নতুন মন্তব্যে বিরাটপ্রেমীরা ফূর্তিতে। সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি যদি বিরাটের ব্যাট থেকে আসে তাহলে তার চেয়ে ভালো কিছু আর হয় না। শচীনও চান, এই কীর্তি থাকুক দেশেই। তাঁর আশা ছিল, রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলির মধ্যে কেউ একজন ভাঙবে তাঁর রেকর্ড।

তবে এখানেই থামেননি নরেন্দ্র। বিরাটকে নিয়ে আরও ভবিষ্যৎবাণী করেছেন তিনি। বলেছেন, ‘আমি দেখতে পাচ্ছি বিরাট ২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বকাপ এবং টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতবে। শচীনের রেকর্ডও ভেঙে দেবে। আগে করা আমার ভবিষ্যতবানী মিলে গেছে। এটাও মিলবে।’

নরেন্দ্রর ভবিষ্যতবানী মিললে শুধু নরেন্দ্রই নয় উচ্ছ্বাসে ভেসে যাবেন কোটি কোটি বিরাট ভক্ত-সহ গোটা দেশ। ২০০৬ সালে স্বর্ণ ব্যবসায়ী থেকে ‘ক্রিকেট জ্যোতিষী’ হয়ে ওঠেন নাগপুরের নরেন্দ্র বুন্দে। তারপর থেকেই করে চলেছেন একের পর এক ক্রিকেট ভবিষ্যৎবানী। এবং তিনি মেলেচ্ছেন। আশায় বুক বেঁধেছে গোটা দেশ, বিরাট ভক্তরা। তবে ক্রিকেটটা তো মাঠে নেমে বিরাটকেই খেলতে হবে কোনও জ্যোতিষীকে নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: