আসন্ন আইপিএল কেকেআরকে নেতৃত্ব দিতে আগ্রহী এই তারকা!

আর মাত্র মাস দেড়েক বাকি রয়েছে আকর্ষণীয় ভারতীয় প্রিমিয়া লিগ শুরু হতে, এবং এই প্রতিযোগিতার একটি ফ্রেঞ্চাইজি কলকাতা নাইট রাইডার্স ম্যানেজমেন্ট এখনও তাদের অধিনায়কের খোঁজ চালিয়ে যাচ্ছে। রবীন উথাপ্পা এবং দীনেশ কার্তিকের নাম উত্থাপন হলেও এখনও পর্যন্ত কোনো কিছুই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় নি। এবং ক্রিস লিন মনে হচ্ছে সম্ভাব্য অধিনায়ক তালিকার শীর্ষে রয়েছেন।

এর মধ্যেই কেকেআরের হেড কোচ জ্যাক কালিস ক্রিস লিনের নামকেও অধিনায়ক হিসেবে অস্বীকার করেন নি। হয়ত তিনিও একজন ক্যান্ডিডেট এই কাজের জন্য এবং দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার দৌড়েও রয়েছেন টি২০ আন্তর্জাতিক ট্রান্স- তস্মান ত্রিদেশীয় সিরিজের মধ্যেই এই খবর ক্রিস লিনের কানে পৌঁছোয়। অ্যাগ্রেসিভ ব্যাটসম্যান ক্রিস লিন তার প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন যে তিনি এই বড়ো সুযোগের সদ্বব্যবহার করতে ভীষণই খুশি অনুভব করবেন। সংবাদমাধ্যমের কাছে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন,

“ আমি খুশি হব, আমি এই সুযোগের জন্য ঝাঁপাব। কলকাতায় আমাদের কাছে একটা ভাল গ্রুপ রয়েছে। কোচিং স্টাফ সাইমন কাটিচ, জ্যাক কালিস, হিথ স্ট্রিক… আমি খুব সহজেই ওদের সঙ্গে রিলেট করতে পারব। কিন্তু সেখানে গোটা দু’য়েক ছেলেরাও রয়েছে, আইপিএলে যারা বছর দশেক ধরে রয়েছে, তাই আপনি তাদের অভিজ্ঞতাকে ইগনোর করতে পারবেন না, বিশেষ করে তাদের নিজেদের ঘরের মাঠে।  আমি এখনও সেখানে খেলাটা শিখছি কিন্তু যদি আমাকে সুযোগ দেওয়া হয় তাহলে আমি সেই সুযোগের জন্য অবশ্যই ঝাঁপাব”।

টি২০তে ক্রিস লিনের অভিজ্ঞতার কথা মাথায় রেখে বলা যায় তিনি এই কাজের জন্য অন্যতম শক্ত প্রতিদ্বন্ধী। যদিও একই সময়ে, তার ফিটনেস এমন একটা ব্যাপার যা সবচেয়ে বড়ো চিন্তার বিষয়। গত আইপিএলেও কাঁধের চোটের জন্য ক্রিস লিনকে প্রায় একমাস মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছিল। তাও কেকেআর তার সুস্থ হওয়ার জন্য অপেক্ষা করেছে তাকে রিলিজ না করে তার রিপ্লেসমেন্ট খোঁজার বদলে। এটা যথেষ্ট দেখার জন্য যে কেকেআর তার জন্য বড় কোনো পরিকল্পনা করে রেখেছে। সুনীল নারিনের সঙ্গে তাকেও ফ্রেঞ্চাইজি রিটেন করেছে, গৌতম গম্ভীর এবং রবিন উথাপ্পার জায়গায়। যদিও কেকেআর রবিন উথাপ্পার জন্য রাইট টু ম্যাচ কার্ড ব্যবহার করে কিন্তু রিটেনশনের দিন তাকে রিটেন করে নি। যদি লিনকে সুযোগ দেওয়া হয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার, তাহলে এটা উথাপ্পা এবং কার্তিকের কাছে বেশ একটা সারপ্রাইজই হবে কারণ এই দুজনের আইপিএলের অভিজ্ঞতা অনেকটাই বেশি।

যদিও যদি গত মরশুমের সমস্ত ফ্রেঞ্চাইজিদের ফলাফল দেখা যায়, তাহলে দেখা যাবে বিদেশি অধিনায়করাও যথেষ্টই ভাল ফল করেছেন। শেন ওয়ার্ন, অ্যাডাম গ্রিলক্রিস্ট এবং ডেভিড ওয়ার্নার তাদের আইপিএল দলকে নেতৃত্ব দিয়ে জয় পাইয়েছেন এবং ঘটনাচক্রে তিনজনেই অস্ট্রেলিয়ান। ক্রিস লিনও অস্ট্রেলিয়ার হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন এবং কেকেআরও এই ফ্যাক্টরকে মাথায় রাখবে। অধিনায়ক পদের জন্য এখনও কোনো তথ্যের খোলসা করে নি এই ফ্রেঞ্চাইজি। তবে এটা পরিস্কার যে উথাপ্পা কার্তিক এবং লিনের মধ্যে কোনো একজনকে এই পদ দেওয়া হতে পারে, তবে উথাপ্পা এবং লিন এই দৌড়ে সামনের সারিতেই রয়েছেন, তবে কার্তিকের অভিজ্ঞতাকেও অস্বীকার করার উপায় নেই।

আরো পড়ুন- হ্যাঁ, আইপিএলে নাইট রাইডার্সের হয়ে এঁরাও এক সময় খেলেছেন, অনেকেরেই হয়তো মনে নেই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: