আইপিএল ক্রিকেটে ম্যাচ ফিনিশার হয়ে উঠতে চান কলকাতার নাইট

দু’বারের আইপিএল চ্যাম্পিয়ন কলকাতা নাইট রাইডার্স আইপিএল ২০১৮ মেগা অকশনে যেভাবে ক্রিকেটার কিনেছে এবং টিম তৈরি করেছে একাদশ মরশুমের জন্য, তাতে ক্রিকেট মহল শুরুতে ধন্দে পড়ে গিয়েছিল। বিদেশি ক্রিকেটার কেনার ব্যাপারে সেভাবে ঝুঁকতে দেখা যায়নি কেকেআর ফ্র্যাঞ্চাইজিকে। তুলনায় টিমে ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটার ঠাঁসা। এর মধ্যে বেশিরভাগই ঘরোয়া ক্রিকেটে স্টার ক্রিকেটার।

অপূর্ব ওয়াংখেড়ে তাঁদের মধ্য়ে একজনই। জাতীয় দলে সুযোগ না পেলেও, ঘরোয়া ক্রিকেটে তাঁর বেশ সুনাম রয়েছে। অনেকের কাছে অপূর্বের নাম অচেনা লাগলেও, ক্রিকেটার হিসেবে পোড় খাওয়া তিনি। বিদর্ভের হয়ে অনেকদিন হলো ক্রিকেট খেলছেন। প্রচুর অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর।

অসম্ভব রকমের প্রতিভাবান এই ক্রিকেটারটি গত তিন বছরে আইপিএলে রয়েছেন। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সে থাকাকালীন সেভাবে খেলার সুযোগ আসেনি তাঁর সামনে। এবার তাঁকে মুম্বই ছেড়ে দেয়। আর কলকাতা তাঁকে কিনে এনেছে। নতুন দলে এসে আইপিএলে সুযোগ না পাওয়ার খামতিটা পূরণ করতে চান অপূর্ব।

অপূর্বের মতে যে কোনও খেলোয়াড় যে টুর্নামেন্টেই খেলুক না কেন, ভালো খেলোয়াড় হতে হলে তাকে চাপ সামলাতে হবেই সবসময়। ক্রিকেট ছাড়াও খো-খো, ভলিবল এবং অ্যাথলেটিক্সেও অংশগ্রহণ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে ওয়াংখেড়ের। তাঁরা আশা, সুযোগ এলে তিনি ভালোভাবেই কাজে লাগাবেন। ”যে টুর্নামেন্টে খেলো না কেন, চাপ আসবেই। আসল ব্যাপার হলো সুযোগ কতটা কাজে লাগাতে পারছ, আর তোমার ওপর টিম ম্যানেজমেন্ট যে আস্থা রেখেছে, সেটা কতটা পূরণ করতে পারছ। আমায় যদি পাঁচটা ম্য়াচ খেলতে দেওয়া হয়, তাহলে আমার লক্ষ্য থাকবে, শেষ তিনটে ম্যাচে ভালো কিছু করে দেখানো। আশা করি, আমরা ভালো খেলব।”

ম্যাচ ফিনিশার…

আইপিএল ক্রিকেটে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে ম্যাচ ফিনিশারের ভূমিকা নেওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী অপূর্ব। বললেন, ”যদি শেষ পর্যন্ত ক্রিজে থেকে যেতে পারি, তাহলে টিমকে ম্যাচ আমি জেতাবই। মরা পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যেতে যদি পারি, তাহলে নিজের ওপরে আস্থা রয়েছে আমার।”

দলবদল…

বিদর্ভের হয়ে ক্রিকেট খেলছেন সাত বছর হয়ে গেল। জাতীয় দলে সুযোগ এখনও অধরা। দল বদলানোর ব্যাপারে কখনও কি ভেবে দেখেছেন?

”না…! বরং বিদর্ভের হয়ে ক্রিকেট খেলতে পারার জন্য আমি আনন্দিত। আমাদের দলে অনেক বড় বড় ক্রিকেটার আছে। তাদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলতে পারার জন্য নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি।”

আইপিএল নিয়ে ভাবনা…

সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ নেওয়াটাই বড় ব্য়াপার। এরপর ইরানি ট্রফি আছে। সেটা হয়ে গেলে আইপিএল নিয়ে ভাবব। তার আগে কয়েকদিনের জন্য মুম্বই যেতে হবে, দলের সঙ্গে ক্যাম্পে যোগ দিতে। এখন  নিজের বোলিং নিয়ে খাটছি। বেশি করে মিডিয়াম পেস বোলিংটা ঝালিয়ে নিচ্ছি। তবে, আইপিএলের আগে ওটা কোনও ম্যাচে প্রদর্শন করতে যাবো না। কারণ, আমি এখনও তৈরি নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: