ওয়ানডে-তে নিজেদের দেশের মাটিতে কোন দেশের সর্বনিম্ন রান কত! জানেন ভারতেরটা!

রবিবার সেঞ্চুরিয়ানে ভারতের বিরুদ্ধে ১১৮ রানে অল আউট হয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা। এমন একটা ম্যাচ দেখে উঠে জেনে নিন নিজেদের দেশের মাটিতে ওয়ানডে ক্রিকেটে কোন দেশ কত কম রানে অল আউট হয়েছে।

জিম্বাবোয়ে- ৩৫ রানে অল আউট, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে, ২০০৪ সালে, হারারে-তে
২০০৪ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে নিজেদের দেশের মাটির এক নম্বর স্টেডিয়ামে জিম্বাবোয়ে ১৮ ওভারে মাত্র ৩৫ রানে অল আউট হয়ে গিয়েছিল। এটাই ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে কম রানে অল আউট হওয়ার রেকর্ড।

বাংলাদেশ-

৫৮ রানে অল আউট, ২০১১ সালে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে, ঢাকায়। ও ২০১৪ সালে ভারতের বিরুদ্ধে, ঢাকায় ৫৮ রানে
১০৬ রানের মামুলি টার্গেট তাড়া করতে নেমে মাত্র ৫৮ রান করে অলআউট বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ ছিলো ভারত। এক কথায় বিফলে যায় তাসনিমের অভিষেক ম্যাচে ৫ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড। বোলরাররা যা করে দেখালো তার জবাব দিতে না পেরে বাংলাদেশকে লজ্জায় ডুবালো ব্যাটসম্যানরা। আর এ হারের মাধ্যমে ভারতের দ্বিতীয় শেণীর টীমের কাছে ওয়ানডে সিরিজও হাতছাড়া করলো টাইগাররা।৪৭ রানে বাংলাদেশকে হারিয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জয়ে আনন্দে আত্মহারা সুরেশ রায়নার দল। খেলার শুরুতে প্রথম তিন ওভারে আউট হয়েছিলেন বাংলাদেশ দলের দুই ওপেনার। প্রথম ওভারেই সাজঘরে ফিরলেন তামিম ইকবাল। ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থতার পরও তামিমকে দলে রাখা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। মোহিত শরমার প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে সাহার হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ও দলীয় ৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। তৃতীয় ও মোহিত শরমার দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে তামিমের পথে হাটলেন এনামুলও। কোন রান না করেই রায়নার হাতে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। এরপর মিঠুন আলীকে নিয়ে ৩১ রানের পার্টনারশিপ গড়ে আউট হন তিনি।

অস্ট্রেলিয়া- ৭০ রানে অল আউট, ১৯৮৬ সালে, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে, অ্যাডিলেডে
অস্ট্রেলিয়ার দোর্দণ্ডপ্রাতপ দলকে তাদের দেশে গিয়ে ১৯৮৬ সালে অল আউট করেছিল নিউজিল্যান্ড। ঠিক এক বছর নিজেদের দেশের মাটিতে ১৯৮৬ সালে ৭০ রানে অল আউট হওয়া দলটা বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারতে এসে।

পাকিস্তান- ৭৫ রানে অল আউট, ২০০৭ সালে, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে, লাহোর
২০০৭ সালে মিসবাদের লাহোরের গদ্দাফি স্টেডিয়ামে ৭৫ রানে অল আউট করেছিল পাকিস্তান। সেবছর বিশ্বকাপে আয়ারাল্যান্ডের কাছে হেরে গ্রুপ লিগ থেকে বিদায় নিয়েছিল।

ভারত-

৭৮ রানে অল আউট, ১৯৮৬ সাল, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে, কানপুরদেশের মাটিতে ভারত মাত্র একবারই ১০০ রানের নিচে অল আউট হয়েছিল। কানপুরে ১৯৮৬ সালে শ্রীলঙ্কা ভারতকে ৭৮ রানে অল আউট করে দিয়েছিল।

দক্ষিণ আফ্রিকা- ১১৮ রানে অল আউট, ২০১৮ সালে, ভারতের বিরুদ্ধে, সেঞ্চুরিয়ানে যা কেউ পারেনি। তাই করে দেখান চাহাল, কুলদীপ যাদবরা। সেঞ্চুরিয়নের ঘূর্ণি পিচে প্রোটিয়াদের ঘরের মাঠে সর্বনিম্ন ১১৮ রানে অলআউট করে দেয় ভারত৷ এর আগে ২০০৯-এ পোর্ট এলিজাবেথে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১১৯ রানে অলআউট হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা৷ পাল্টা ব্যাট করতে নেমে ২০.৩ ওভারে কেবলমাত্র রোহিত শর্মার উইকেট হারিয়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১১৯ রান তুলে নেয় টিম ইন্ডিয়া৷

ইংল্যান্ড-৮৬ রানে অল আউট, ২০০১ সালে, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে, এজবাস্টনে
২০০১ সালে ৮৬ রানে অল আউট করে সাহেবদের মহালজ্জা দিয়েছিল ইংল্যান্ড।

নিউজিল্যান্ড-

NAPIER, NEW ZEALAND – FEBRUARY 20: Tim Southee of New Zealand celebrates with teammates after dismissing England captain Alastair Cook during the second match of the international Twenty20 series between New Zealand and England at McLean Park on February 20, 2013 in Napier, New Zealand. (Photo by Gareth Copley/Getty Images)

৭৩ রানে অল আউট, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে, ২০০৭ সালে, অকল্যান্ডে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে ৭৩ রানে অল আউট করে নিউজিল্যান্ড।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ- ৯৮ রানে অল আউট, ২০১৩ সালে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে, গুয়েনা-য় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ২০১৩ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৯৮ রানে অল আউট হয়ে গিয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: