কোন দলের কোচ সব থেকে মোটা টাকা বেতন পান জানেন? তালিকা তা দেখলে চমকে উঠবেন

ক্রিকেট খেলা ইংল্যান্ডে জন্ম নিলেও, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পাড়ি দিয়েছে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে। খেলাটা এখন আরর খেলা নেই, বরং দিনদিন আরও বেশি করে পেশাদারি হয়ে পড়েছে। একসময় ক্রিকেটা খেলাটা আনুষাঙ্গিক ব্যাপার ছিল। আর এখন ক্রিকেট খেলাটা ঠাঁটবাঁটে বাঁচার জন্য রুজিরুটি হয়ে গিয়েছে খেলোয়াড়দের। ক্রিকেট যত আধুনিক হয়েছে, ততই পেশাদার হয়ে উঠেছে, আর ততটাই অর্থ রোজগারের একটা দিক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট মাঠে দ্বৈরথ এক শতাব্দীরও বেশি প্রাচীন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ একসময় ক্রিকেট মাঠে দাপিয়ে বেড়িয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার মতো ক্রিকেট টিম তার পাশাপাশি গত শতাব্দীর শেষ দশকের দিক থেকে উঠে আসতে শুরু করে। আর ভারতীয় ক্রিকেট দল অর্থবলে বলিয়ান হওয়ার পাশাপাশি এই সহস্রাব্দে পাশে রেখেই ক্রিকেটীয় শক্তিতে বলিয়ান হয়ে উঠেছে।

অগণিত ক্রিকেটপ্রেমী বহু তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানের নাম শুনেছেন। আবার ব্যাটসম্যানদের ত্রাস বোলারের নামও ক্রিকেট বিশ্বের নানা প্রান্তে ছড়িয়েছে। আজ অনেক ক্রিকেটার কিংবদন্তিতে পরিণত। যে যাঁর নিজের সময়ে বাইশ গজের পাশাপাশি ডিম্বাকৃতি ঐতিহ্যবাহী মাঠে নিজেদের দক্ষতা দেখিয়ে ছাপ রেখে গিয়েছেন। সেসব কথা ইতিহাসে পাতায় সোনালি অক্ষরে লেখা। তাঁদের অমর কীর্তি বারবার কানে গেলে গায়ে রোমাঞ্চের শিহরণ দিয়ে যায়।

একটা সময় ছিল যখন কোনও বিশেষ ব্যাটসম্যান বা বোলারের কারণে কোনও একটা টিম বিশ্বত্রাস ছিল। তারপর একটা যুগ এলো যখন একাধিক ক্রিকেটার একটা টিমের বিজয় রথ বয়ে নিয়ে চললেন। বর্তমানে সেই ধারা সবকটি বড় টিমই বয়ে চলেছে। তবে, তার সঙ্গে যোগ দিয়েছে ভালো একজন কোচের পোড় খাওয়া মাথার ধুরন্ধর বুদ্ধি। টিমে বাঘা বাঘা চ্যাম্পিয়ন ব্যাটসম্যান বা বিশ্বত্রাস বোলার যতই থাক, তাঁদেরকে একসঙ্গে একসূত্রে গেঁথে দলটাকে পরিকল্পনা মাফিক এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই একজন কোচের কাজ। সব খেলাতেই একজন ভালো কোচের দরকার আছে। ক্রিকেটই বা তার থেকে দূরে থাকবে কেন? মানুষ মাত্রেই ভুল-ত্রুটি হয়, আর খারাপ-ভালো ফর্ম আসে সবারই কেরিয়ারে, কোচের কাজ হলো, ক্রিকেটারদের দোষ-গুনটা ধরিয়ে দিয়ে তাঁদের থেকে ভালো পারফরম্যান্স আদায় করে নেওয়া টিমের স্বার্থে।

NAPIER, NEW ZEALAND – FEBRUARY 20: Tim Southee of New Zealand celebrates with teammates after dismissing England captain Alastair Cook during the second match of the international Twenty20 series between New Zealand and England at McLean Park on February 20, 2013 in Napier, New Zealand. (Photo by Gareth Copley/Getty Images)

ক্রিকেট টিমে একজন ভালো কোচের দরকার, এই চলটা শুরু হয়েছে গত দু’দশক হলো। আগে শ্রেফ নামকেওয়াস্তে একজন কোচ রাখা হতো। মানে রাখতে হবে, তাই রাখা। কিন্তু, অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট টিম যখন পরপর দু’বার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয় জন বুকাননের কোচিং, তখন থেকেই কোচের ভূমিকাকে গুরুত্ব দিয়ে দেখতে শুরু করে ক্রিকেট গ্রহের টিমগুলি। এখন সবকটি ক্রিকেট টিমই তাঁদের দলের ক্রিকেটারদের ভালো প্রশিক্ষক দেওয়ার চেষ্টা করে, যাঁর তত্ত্বাবধানে বড় মাপের ক্রিকেটার থেকে শুরু করে আনকোরারা আগামীদিনের জন্য দলের স্বার্থে খেলে যাবেন। এখন কোচ রাখার পিছনে প্রচুর পরিমাণে অর্থ খরচ করছে বিভিন্ন ক্রিকেট খেলিয়ে দেশের বোর্ডগুলি। সেসব ক্রিকেট টিমের কোচের মাইনে শুনলে অবাক হয়ে যাওয়ার মতো। আর এই কারণেই একজন কোচকে এখন একটা টিমের সঙ্গে বছরের পর বছর কাজ করতে দেখা যাচ্ছে। এখন ঘনঘন কোচ বদল হওয়ার সেই রীতিটা চলে গিয়েছে।

 

পারিশ্রমিকের দিক থেকে বিশ্বের পাঁচ কোচ দামি ক্রিকেট কোচ –

৫. মিকি আর্থার

পাকিস্তান ক্রিকেট টিমের দায়িত্ব হাতে নেওয়ার পর থেকে ক্রিকেট খেলার ধরণটাই বদলে গিয়েছে সে দেশে। পারফরম্যান্সের মান উন্নত হয়েছে, তেমনই ধারাবাহিকতা এসেছে দলটার খেলায়। এখন পাক ক্রিকেট টিমে সেরম বড় মাপের তারকা ক্রিকেটার নেই বিগত প্রজন্মের মতো, তবুও দলটা ধারাবাহিক। মিকি আর্থারের কোচিংয়ে পাক টিম ২০১৬ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ ড্র করে। তারপর গত বছর আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতেছে। ফিল্ডিংয়ে পাক ক্রিকেট টিম এখন বিশ্ব সেরা। মিকি আর্থারকে রাখতে পাক ক্রিকেট বোর্ড বছরে যা খরচ করে, তার পরিমাণ ভারতীয় মুদ্রায় ১ কোটি ৪০ লক্ষ টাকার মতো।

 

৪. মাইক হেসন

নিউজিল্যান্ডের জাতীয় ক্রিকেট টিমের কোচ মাইক হেসনের কোচিংয়ে ভালো খেলছেন ব্ল্যাকক্যাপ ক্রিকেটাররা। ধারাবাহিকতা এসেছে টিমটাতে। টেস্টের আসরের তুলনায় সীমিত ওভারের ক্রিকেটে কিউয়িরা এখন আর যেমন তেমন টিম নয়। আইসিসি ব়্যাঙ্কিংয়ে উপরের দিকে থাকাটা অভ্যাসে পরিণত হয়ে গিয়েছে তাঁদের। মাইক হেসনের জন্য নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড বছরে যে পরিমাণ অর্থ খরচ করে তার পরিমাণ ভারতীয় মুদ্রায় ১ কোটি ৬০ লক্ষ।

 

৩. ট্রেভর বেইলিস

টেস্টের আসরে ইংল্যান্ডের পারফরম্যান্স যাইহোক না কেন, ট্রেভর বেইলিসের কোচিংয়ে ইংল্যান্ড টিম একদিনের আন্তার্জাতিক এবং টি-২০ আন্তর্জাতিকে এখন দুরন্ত হয়ে উঠেছে। দেশের মাটিতে যেমন জিতছে, তেমনই বিদেশের মাটিতে গিয়েও দাপট দেখাচ্ছে। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড বেইলিস’কে যে পারিশ্রমিক দেয়, তার পরিমাণ ৩ কোটি ৩০ লক্ষ ভারতীয় মুদ্রার আশেপাশে।

 

২.  ডারেন লিম্যান

ক্যাঙারুদের কোচ হিসেবে ডারেন লিম্যানের পারফরম্যান্স অনবদ্য। বিভিন্ন সিরিজ জয় তো আছেই। বড় সাফল্য বলতে ২০১৫ ওয়ান-ডেস বিশ্বকাপ জেতা আর ২০১৩-১৪ এবং ২০১৮৭-১৮ অ্যাসেজ সিরিজ জয়। বছরে লিম্যান পারিশ্রমিক হিসেবে যা পান ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কাছ থেকে, তার পরিমাণ ভারতীয় মুদ্রায় ৩ কোটি ৫০ লক্ষ।

 

১. রবি শাস্ত্রী

ধনকুবের ক্রিকেট বোর্ডের কোচ। তাঁর মাইনেটাও সেরকমই হবে স্বাভাবিক। বর্তমানে ভারতীয় দলের হেডকোচ রবি শাস্ত্রী সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পান। অজি টিমের কোচের পারিশ্রমিকের দ্বিগুণেরও বেশি টাকা ঢালছে বিসিসিআই রবি শাস্ত্রীর পিছনে। একটি বেসরকারি সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বছরে ৭ কোটি ৪০ লক্ষ টাকার চুক্তি রয়েছে বিসিসিআই’য়ের সঙ্গে রবি শাস্ত্রীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: