ইংল্যান্ড সফরে চার নম্বর পজিশনে ব্যাট করার জন্য লড়বেন এই ৪ তারকা!

বিলেত সফরের আগে ইয়ো-ইয়ো টেস্ট পর্ব শেষ ক্রিকেটারদের। পাশ-ফেলের তালিকাও এখন সবার সমানে পরিষ্কার। পরিবর্ত ক্রিকেটারদের নামও জানানো হয়ে গিয়েছে। এবার ভারতীয় ক্রিকেট দলকে ব্রিটিশ যুক্তরাষ্ট্রে রওনা হতে হবে শনিবার (২৩ জুন)। আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২৭ ও ২৯ জুন ২টি টি-২০ আন্তর্জাতিক খেলার পর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩ জুলাই থেকে অফিসিয়ালি পূর্ণাঙ্গ সফর শুরু করবেন বিরাট কোহলিরা। তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচ ম্যাঞ্চেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে।

Indian cricketer 

টি-২০ সিরিজ শেষ হলেও তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজে মুখোমুখি হবে দুই দল। এই ওডিআই সিরিজের জন্য ক্রিকেট সমালোচক ও বিশেষজ্ঞরা বেশ গভীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছেন। কারণ, আগামী বছর ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপের আসর বসবে। আর ভারতীয় দল তার আগে আগেই ইংল্যান্ডে ওডিআই সিরিজ খেলতে চলায়, আগাম একটা প্র্যাক্টিস পেয়ে যাবে। তেমনই অনেকটা আভাস পেয়ে যাবে বিশ্বকাপে কিরকম পরিকল্পনা তাদের নেওয়া উচিত।

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ভারতীয় দলের চার নম্বর পজিশনের সমস্যাটা এখনও মেটেনি। শোনা যাচ্ছে, বিশ্বকাপের আগেই সেই সমস্যাটা মিটিয়ে ফেলতে চায় ভারত। আর এই ইংল্যান্ড সফরেই ভারত চার নম্বর পজিশন নিয়ে পরীক্ষা চালাবে চূড়ান্ত পর্যায়ে। খবরে প্রকাশ, ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট সেই ব্যাপারে ভাবনা-চিন্তাও করে ফেলেছে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজে অনেক চমক দিতে পারে ভারতীয় দল।

যে চার তারকা চার নম্বর পজিশনের দাবিদার –

৪. কান্নুর লোকেশ রাহুল

তালিকায় সবচেয়ে কম বয়সী ক্রিকেটার এবং টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। ভারতীয় দলে কর্নাটকের এই বিরল প্রতিভা এসেছেন, অনেকদিন হয়ে গেলো। সময় নষ্ট করার জন্য আর অবকাশ নেই তাঁর হাতে। একটা কথা মাথায় ঢুকিয়ে নিতে হবে কেএল’কে – তাঁর মধ্যে যতই প্রতিভা থাকুক আর তাঁর যতই পছন্দ হোক ওপেনিং স্লট, রোহিত শর্মা আর শিখর ধওয়ন থাকতে, তাঁকে কোনও মতেই ওপেনার হিসেবে খেলানো হবে না প্রথম একাদশে। অতএব, জাতীয় দলে টিকে থাকতে হলে, তাঁকে যে পজিশন দেওয়া হবে, সেখানেই নিজের সেরাটা তুলে ধরতে হবে। এবার আইপিএল ক্রিকেটে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে ১৪ ম্যাচে ওপেনারের ভূমিকায় রাহুল ৬৫৯ রান করেন। গড় ছিল ৫৪.৯১। স্ট্রাইক রেট ১৫৮.৪১। ফলে, রাহুলকে চার নম্বর পজিশনে পরখ দেখতে পারে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। আর ওডিআই ক্রিকেটে এই পজিশনে নেমে স্কোর করার জন্য অনেক বল হাতে পাবেনও কেএল।

 

৩. দিনেশ কার্তিক

তিরিশের কোটায় ঢুকে পড়া কার্তিক এখন অবসরের অনেক কাছে চলে এসেছেন। বড়জোর আর দু’বছর হয়ত তিনি খেলা চালিয়ে যাবেন। আইপিএল মরশুমের আগে তিনি নিজেও এই কথা বলেছেন। কেরিয়ারের শেষ লগ্নে এসে তামিলনাড়ুর উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান স্বপ্নের ফর্ম ধরেছেন। ডিকে এখন যেরকম ফর্মে আছেন, তাতে তাঁকে যে পজিশনেই নামানো হোক না কেন, ম্যাচ ঠিক বের করে নিয়ে আসবেন। ইংল্যান্ডের মাটিতে কার্তিককে চার নম্বর পজিশনে নামতে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। সবদিক থেকেই যোগ্য ও অভিজ্ঞ প্রার্থী তিনি। অবসরের আগে ডিকে’ও চাইবেন শেষ বিশ্বকাপটাকে স্মরণীয় করে রাখতে।

 

২. সুরেশ রায়না

সীমিত ওভারের ক্রিকেট ইতিহাসে ভারতের সর্বকালের সেরা পারফর্মাদের মধ্যে অন্যতম। অম্বাতি রায়াড়ু ইয়ো-ইয়ো টেস্টে ফেল করায় রায়নার জন্য শিঁকে ছিঁড়েছে বিলেত সফরে। ওডিআই আসরে অনেক দিন পর কামব্যাক করবেন তিনি। তবে, একটা কথা রায়না যেদিন থেকে ইয়ো-ইয়ো টেস্টে পাশ করছেন, তবে থেকে তাঁকে বিশ্বকাপের টিমে চার নম্বর পজিশন দেওয়ার দাবি দিন দিন জোরদার হয়েছে। এবার রায়নাকে সুযোগটা কাজে লাগাতে হবে এই ইংল্যান্ড সিরিজে। অবশ্যই টিম ম্যানেজমেন্ট যদি তাঁকে ওই পজিশনে চায়, তবেই।

 

১. এমএস ধোনি

ক্রিকেট কেরিয়ারে ধোনির সবকিছু অর্জন করা হয়ে গিয়েছে। অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর ধোনি আরও সুপার কুল মেজাজে। কারণ, তিনি জানেন তাঁর বিকল্প ভারতীয় দলে কোনও দিনও পাওয়া যাবে না। আর এটা জানা সত্ত্বেও ধোনির মধ্যে গাছাড়া মনোভাব একেবারেই নেই। বিরাট কোহলি তাঁর টিম ইন্ডিয়াতে আগামী দিনের জন্য হার্দিক পান্ডিয়াকে ম্যাচ ফিনিশার তৈরি করতে চান। ফলে, দাবি জোরদার হচ্ছে অবসর নেওয়ার আগে ধোনিকে এবার ওপরে তুলে আনা হোক। দেশের স্বার্থে তিনি ম্যাচ ফিনিশারের ভূমিকায় কেরিয়ার পুরো সময়টা কাটিয়ে দিলেও, বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান হিসেবে তাঁর কেরিয়ার শুরু ওপরের দিকেই। অবসর নেওয়ার আগে বিরাটের উচিত ব্যাটিং অর্ডারে লেজেন্ডারি এমএসডি’কে তাঁর পুরনো জায়গাটা ফিরিয়ে দেওয়া। আর একটা কথা, এবার আইপিএল সেই পুরনো এমএসডি কামব্যাক করেছেন ব্যাটহাতে। একটা পর্বে তাঁর গড় একশোরও ওপরে ছিল। আর ওডিআই ক্রিকেট মাহিকে যদি চার নম্বরে নামানো হয়, ব্যাটহাতে তিনি অনেক রেকর্ডই খানখান করে দেবেন অবসর নেওয়ার আগে। বিশ্বকাপে ভালো ফলের স্বার্থে ধোনিকে অনেকেই চার নম্বর পজিশনে দেখতে চান। আর তার প্রস্তুতি হিসেবে এই ইংল্যান্ড সিরিজেই অন্তত একটি ম্যাচে চার নম্বরে খেলতে দেখা যেতে পারে মাহিকে। সেই রমকই ইঙ্গিত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: