চীনা ভাষায় ক্রিকেটের নাম শুনে, মজা পেয়ে যুবরাজ যা বললেন ….

ক্রিকেট একতা আনে। ভিন্ন ধর্ম, দেশকে জোড়ে। ক্রিকেট ছড়িয়ে পড়েছে সারা বিশ্বে। অবশ্য সব জায়গায় তার গর্বিত পদক্ষেপ পড়েনি। যেমন, চীন।
সম্প্রতি পাকিস্তানের প্রাক্তণ ক্রিকেটার রামিজ রাজা সাক্ষাতকার নিয়েছেন চীনা ক্রিকেটার ইউফি জ্যাংয়ের। এই চীনা তারকা খেলছেন পাকিস্তান সুপার লিগ। সেখানেই ‘চীনের প্রাচীরের’ ওপর থেকে পর্দা সরিয়েছেন জ্যাং। শুনিয়েছেন চীনাদের ক্রিকেট প্রেমের কথা। জানিয়েছেন, চীনে ক্রিকেটকে ডাকা হয় ‘বানচো’ নামে।
হ্যাঁ, নামটা মজাদার। অনেকটা বাঙালি বা পাঞ্জাবী ভাষায় গালাগালের মতো শোনায়। ইন্টারনেটে আপলোড হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়েছে এই সাক্ষাতকারের ভিডিও। মন জয় করেছে ক্রিকেটপ্রেমীদের। অভিজ্ঞ ক্রিকেটার যুবরাজ সিং ব্যতিক্রম নন। তিনিও দেখেছেন এটি। এবং মজেছেন। নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে আপলোড করেছেন ভিডিওটি। সঙ্গে দিয়েছেন এক মজার ক্যাপশন। ‘চাইনিজরা ক্রিকেটকে বলে বানচো। যেন কোনও পাঞ্জাবীকে ডাকা হচ্ছে চীনা ভাষায়।’ লিখেছেন যুবরাজ।

 

এই মুহূর্তে ফর্মে নেই যুবরাজ। অয়ার্ন্তজাতিক কেরিয়ার পুরোপুরি বেলাইন। বিশ্বকাপ জেতানো এই তারকা দেশের হয়ে শেষ খেলেছেন গত বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। ঘরোয়া ক্রিকেটেও রান করতে পারেননি। হাত ঘুরিয়েও পুরনো ভেলকি দেখাতে পারছেন না। এখন আইপিএল খেলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ৩৬ বছরের এই পাঞ্জাবী একাদশ আইপিএল খেলবেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে।


সম্প্রতি স্পর্টসস্টারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, এখনও তাঁর মধ্যে অনেক ক্রিকেট বাকি আছে। অবসর নিয়েও মুখ খুলেছেন, ‘ঠিক সময় অবসর নেব। যেদিন মনে হবে নিজের সেরাটা দিতে পারছি না সেদিন থেকে আর খেলব না। আইপিএল খেলার জন্য বা দেশের হয়ে খেলতে পাব বলে ক্রিকেট খেলছি না। আমি এখনও ক্রিকেট উপভোগ করি। অবশ্যই দেশের হয়ে খেলা প্রেরণা যোগায়। মনে হয় এখনও দুই থেকে তিনটি আইপিএল খেলতে পারব।’

টি-টোয়েন্টিতে টানা ৬ বলে ৬ ছক্কা, কিংবা ১২ বলে হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ড আছে যুবরাজের ঝুলিতে। এই বাঁ-হাতি ব্যটসম্যান ক্রিকেটের পোস্টারবয়। রঞ্জি ট্রফিতে সেঞ্চুরির হ্যাটট্রিক আছে তাঁর। অষ্টম আইপিএলে ১৬ কোটি টাকায় যুবরাজকে দলে নিয়েছিল দিল্লি ডেয়ার ডেভিলস। সপ্তম আইপিএলেও রেকর্ড দাম পেয়েছিলেন। ১৪ কোটি টাকা। খেলেছিলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের হয়ে। টি টোয়েন্টিতে শতরান না থাকলেও ৯টি অর্ধশতরান আছে যুবির।

বিশ্বের সবচেয়ে দামী ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আইপিএল-কে ঘিরে দুর্নীতি আর ফিক্সিংয়ের যতই অভিযোগ উঠুক, এর আকর্ষণ কমেনি একচুলও। ভাবা হয়েছিল বিচারপতি মুদ্গলের রিপোর্টের পর উন্মাদনা কমবে। কিন্তু আইপিএল-এ টাকার ঝনঝনানি অত সহজে বন্ধ হওয়ার নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: