‘পদ্মাবত’ দেখলেন চিত্র সমালোচকরা, দেখে যা বললেন তাতে মন খারাপ হয়ে যাবে আপনার!

সবার আগে পদ্মাবত দেখে ফেললেন চিত্র সমালোচকরা। দেশজুড়ে ২৫ জানুয়ারি এবং আমাদের রাজ্যে ২৪ জানুয়ারি অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সন্ধে ৬ টার পরই মুক্তি পাবে বনশালির সিনেমা। আর সেই সিনেমা নিয়ে রিভিউ চলে এল।

দেশের সব বড় চিত্র সমালোচকই এই সিনেমা দেখে তাঁদের মতামত জানালেন। আর সেটা শুনলে আপনার মনটাই খারাপ হয়ে যাবে। দীর্ঘ টালবাহানার পর রিলিজ করছে এই সিনেমা। অবশ্য দেশের এক অংশে এই সিনেমার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ এখনও চলছে। সিনেমার নাম পদ্মাবতী থেকে পদ্মাবত করে বিতর্কে মেটানোর চেষ্টা হয়েছে। কিন্তু রাজনৈতিক ফায়দা তোলার লোভে বিক্ষোভ সমানে চলেছে।

ফিল্ম সমালোচক রমেশ বালার সিনেমাটিকে অকল্পনীয় সুন্দর বলে ব্যাখ্যা দিয়েছে। প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন আলাউদ্দিন খলজি রূপী রণবীর সিংয়ের। তাঁর কথায় সিনেমাটি না দেখলে বিশ্বাসই করা যাবে না যে এটা কতটা অসাধারণ। তিনিও সিনেমাটিকে সর্বক্ষেত্রে ৫এর মধ্যে সাড়ে ৪ দিয়েছেন। অথচ এই সিনেমাকেই কি না মুক্তি পেতে দেওয়া হচ্ছিল না। সত্যি মন খারাপই হওয়ার কথা।

তরণ আদর্শ, রমেশ বালা থেকে থেকে শুরু করে খ্যাতনামা ফিল্ম সমালোচকরা। তরণ আদর্শ সিনেমাটি ৫এর মধ্যে সাড়ে ৪ দিয়েছেন। তাঁর কথায় সিনেমাটি ‘অসাধারণ’, ‘মাস্টারপিস’। সিনেমাটির চিত্রনাট্য, থেকে শুরু করে মিউজিক, কোরিওগ্রাফি সবকিছুতেই ছাপিয়ে গেছেন বনশালি। আর সবথেকে বড় কথা, ‘পদ্মাবত’ নিয়ে রানি পদ্মিনীকে ছোট করার যে অভিযোগ উঠেছিল, সেই অভিযোগ সিনেমাটি দেখলে এক ঝটকায় বদলে যাবে বলেই দাবি করেছেন ফিল্ম সমালোচকরা।

সিনেমার ক্লাইম্যাক্সটিকে গায়ের লোম খাঁড়া হয়ে যাচ্ছে বলে তাঁরা জানান। এই সিনেমাটি শুধু ভারতীয় সিনেমাকে নয় রাজপুতদেরও সম্মান বাড়াবে বলে তাঁরা জানান। রণবীর সিংয়ের অভিনয়কে সাম্প্রতিককালের সেরা বলা হচ্ছে। শাহিদ কাপুরের অভিনয়েরও প্রশংসা করা হয়েছে। শোর্ড ফাইট দৃশ্যটিরও প্রশংসা করা হয়েছে। তবে একটাই সমালোচনা, সিনেমাটা নাকি প্রয়োজনের তুলনায় একটু বড়।

ফিল্ম সমালোচকদের কথায়, ‘পদ্মাবত’ রাজা রাওয়াল রতন সিং রূপে শাহিদ কাপুর, রানি পদ্মীনী রূপে দীপিকা পাড়ুকোনের অভিনয় তো প্রশংসার দাবি রাখেই। তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে গেছে আলাউদ্দিন খলজি রণবীরের অভিনয়। বেশ বোঝা যাচ্ছে তিনি এই চরিত্রের মধ্যে ঢোকার জন্য কতটা পরিশ্রম করেছেন।

অভিযোগের তো কোনও প্রশ্নই নেই উপরন্তু ‘পদ্মাবত’ রাজপুতদের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসকে আরও বেশি করে সামনে এনেছে বলে মনে করেছেন ফিল্ম সমালোচকরা। তাঁদের কথায় সিনেমাটি দেখে রাজপুত সহ সকল ভারতীয়দেরই গর্ব হওয়া উচিত বলেই মনে করছেন সকলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: