বাহুবলিতে অভিনয় করার সুবর্ণ সুযোগ হাত ছাড়া করেছিলেন যে ৭ অভিনেতা অভিনেত্রীরা

কিছুদিন আগেই মুক্তিপ্রাপ্ত ভারতীয় সিনেমা বাহুবলীর শেষ ভাগ ‘বাহুবলী,দ্য কনক্লিউশন’ বক্স অফিসে তোলপাড় করে ভারতীয় সিনেমার বহু রেকর্ডই ভেঙে দিয়েছে। সেই সঙ্গে প্রথম ভারতীয় সিনেমা হিসেবে হাজার কোটির ক্লাবেও জায়গা করে নিয়েছে এই দক্ষিনী ছায়াছবিটি। ভারতীয় সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির প্রত্যেকের জন্যই এই সিনেমাটি একটি ল্যান্ডমার্ক, এবং ছবির কলাকুশলিদের জন্য এই ছবিতে অভিনয় করাও ছিল একটা সুবর্ণ সুযোগ। আজ আমরা এখানে এমন কয়েকজন অভিনেতার কথা তুলে ধরব যারা এই সুবর্ণ সুযোগ পেয়েও তা নিতে অস্বীকার করেছিলেন।

শ্রীদেবী

খবর অনুসারে শ্রীদেবীকে শিবগামী দেবীর রোল অফার করা হয়েছিল। কিন্তু তার হাই ডিমান্ডের জন্য শেষ পর্যন্ত এই চরিত্রটি রামাইয়া কৃষ্ণানের কাছে চলে যায়। কিন্তু এখন এটা দেখার পর কেউই এই চরিত্রে রামাইয়াকে ছাড়া অন্য কাউকেই কল্পনা করতে পারবেন না।

ঋত্বিক রোশন

ডিএনএর রিপোর্ট অনুযায়ী, বাহুবলি সিনেমার পরিচালক এসএস রাজামৌলির প্রাথমিক পরিকল্পনা ছিল ঋত্বিক রোশনের মত অভিনেতাকে নিয়ে এই সিনেমাটি হিন্দিতে পরিচালনা করার, এবং পরে তা অন্যান্য ভাষায় ডাব করার। এমনকী তিনি এই চরিত্রটি ঋত্বিক রোশনকে অফারও করেন, কিন্তু ঋত্বিক এই চরিত্রটি করতে আগ্রহ দেখান নি এবং শেষ পর্যন্ত তা চলে যায় প্রভাসের কাছে। যদিও পরে একটি সাক্ষাৎকারে ঋত্বিক সংবাদমাধ্যমকে জানান যে বাহুবলি চরিত্রটি কেবলমাত্র প্রভাসের জন্যই লেখা হয়েছিল।

জন আব্রাহাম

রাজা মৌলি ধরেই নিয়েছিলেন বল্লালদেবের চরিত্রটির জন্য জন আব্রাহামই তার প্রথম পছন্দ, সেই মত তিনি স্ক্রিপ্টও পাঠিয়েছিলেন তার কাছে। কিন্তু জনের কাছ থেকে কোনো রেসপন্সই পান নি তিনি। যার পরেই পরিচালক সিদ্ধান্ত নেন যে তিনি এই চরিত্রটি রানাকে দিয়ে করাবেন।

 

বিবেক ওবেরয়

এটাও জানা গিয়েছে যে রাজা মৌলি বিবেক ওবেরয়কেও বল্লালদেবের চরিত্রটি অফার করেছিলেন। কিন্তু তার ব্যস্ত শিডিউলের জন্য বিবেকের কাছে আর কোনো অপশন ছিল না এই চরিত্রটি ফিরিয়ে দেওয়া ছাড়া।

 

মোহনলাল

খবর অনুসারে দক্ষিণী অভিনেতা মোহনলালও কাটাপ্পার চরিত্রটি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। তারপরেই এই চরিত্রটি করেন আরেক অভিনেতা সত্যরাজ। আমরা সকলেই জানি, পরে এই চরিত্রটিই এই সিনেমার অন্যতম একটু গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র হয়ে ওঠে।

 

সোনম কাপুর

প্রথমে বাহুবলি সিনেমায় অবন্তিকার চরিত্রটি করার কথা ছিল অভিনেতা অনিল কাপুরের কন্যা সোনমের, কিন্তু পরে তিনি চরিত্রটি করতে চান নি। কারণ এই সিনেমার পরিচালক চেয়েছিলেন সোনম তার সমস্ত সময় এই সিনেমাটির জন্যই ব্যয় করুন আগামি দু বছরের জন্য। যার ফলে সোনম এই চরিত্রটি ফিরিয়ে দেন।

 

নয়নতারা

দক্ষিণী নায়িকা নয়নতারাকে এই সিনেমাটির প্রধান নারী চরিত্র দেবসেনার চরিত্রটি অফার করা হয়। কিন্তু তিনি এই অফার ফিরিয়ে দেন যা পরে আর এক দক্ষিণী নায়িকা অনুষ্কা শেট্টির কাছে চলে যায়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: