নিজের নামে কাটা টিকিট বদলানো যাবে অন্যের নামে, সুযোগ দিচ্ছে ভারতীয় রেল

অনেক সময়েই এমন হয়, নিজের নামে ট্রেনের টিকিট কাঁটা হয়েছে। কিন্তু ট্রেনের যাত্রার দিন কোনও অসুবিধার কারণে যেতে পারবেন না বা যাওয়ার দরকার নেই। হয়ত পরিবারেরই অন্য কারও ওই ট্রেন ধরা দরকার। বা টিকিট দিয়ে দিতে চান অন্যকাউকে।ভারতীয় রেল এই সুবিধা নিয়ে এসেছে। কোনও যাত্রীর কনফার্মড টিকিট অন্য কারও নামে বদলে দেওয়ার সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে এখন।

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনের চিফ রিজার্ভেশন সুপারভাইজার কনফার্মড টিকিটে এই নাম বদল করে দিতে পারেন।
কিন্তু এটি করতে হবে যাত্রা শুরুর অন্তত ২৪ ঘণ্টা আগে। আর সেই নামের বদল একটি টিকিটে একবারই করা যাবে।

কাদের জন্য এই নিয়ম মেনে লাগু –
১) সেই সমস্ত সরকারি কর্মীদের জন্য যাঁরা অফিসের কাজে ট্রেনে যাত্রা করছেন। তাঁদের ট্রেনের যাত্রার শুরুর ২৪ ঘণ্টা আগে লিখিতভাবে আবেদন করতে হবে।

২) কোনও যাত্রী তাঁর পরিবারের বাবা, মা, ভাই, বোন, ছেলে, মেয়ে, স্ত্রী বা স্বামীর নামে টিকিট বদল করতে পারবেন।

৩) কোনও ছাত্র বা ছাত্রী তাদের স্কুল-কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য কোনও ছাত্র বা ছাত্রীর নামে টিকিটটি বদলাতে পারার সুবিধা মিলবে।


৪) বিয়ে বা কোনও অনুষ্ঠান উপলক্ষে বরযাত্রী বা কন্যাযাত্রীরাও এই সুবিধা নিতে পারবেন। যদি একদল যাত্রী বিয়ে উপলক্ষে একসঙ্গে ট্রেনে যাত্রা করেন, সে ক্ষেত্রে সেই দলের প্রধান হিসেবে কোনও এক যাত্রী এক জনের নাম কেটে অন্য জনের নামে টিকিট বদলের আবেদন করতে পারবেন।


৫) এনসিসি ক্যাডেটরাও এই সুবিধার সুযোগ নিতে পারবেন। এক সঙ্গে ক্যাডেটরা যাত্রা করলে, দলের প্রধান বা কোনও এনসিসি অফিসার একজনের নাম বদলে অন্য জনের নামে টিকিটটি করে দেওয়ার আবেদন করতে পারবেন।
তবে একসঙ্গে যাত্রার ক্ষেত্রে সেই দলের ১০ শতাংশ যাত্রীর নাম এই ভাবে বদল করা যাবে। তার বেশি নয়।


একইসঙ্গে টিকিট কেটে ট্রেনে চড়ে দাম পরে মেটানোর সুবিধাও দিচ্ছে রেল। তবে এই পরিষেবা এখনও চালু হয়নি। আইআরসিটিসি-র মুখপাত্র সন্দীপ দত্ত একটি সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছেন, খুব শিগগিরই এই পরিষেবা শুরু হতে চলেছে। আইআরসিটিসি ওয়েবসাইটেই পাওয়া যাবে এই সুযোগ। এই পরিষেবা চালু করার জন্য মুম্বইয়ের একটি সংস্থা ‘ই-পে লেটার’-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে আইআরসিটিসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: