জম্মুতে হামলাকারী জঙ্গিদের একজন ‘দশম শ্রেণীর ছাত্র’

বর্ষবরণের আগের রাতে জম্মু ও কাশ্মীরে সেনা ছাউনিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। জম্মু ও কাশ্মীরের অবন্তীপুরায় সিআরপিএফের সেনা ছাউনিতে হামলাকারী দুই জঙ্গির মধ্যে এক জঙ্গি কিশোর এবং দশম শ্রেণীর ছাত্র বলে জানা গেছে। ওই জঙ্গি জইশ জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্য বলে পুলিশের কাছে খোঁজ মিলেছে। শনিবার গভীর রাতে অতর্কিতে হামলার ঘটনায় শহীদ হয়েছেন ৫ জওয়ান। প্রায় ৮ ঘন্টা লড়াইয়ের পর নিকেশ করা হয় দুই জঙ্গিকেও। জঙ্গি হামলা রুখতে এলাকায় শুরু হয়েছে তল্লাশি এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

ঘটনার তদন্তের পর গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন যে জম্মু কাশ্মীর পুলিশের এক কর্মী ওই কিশোরের বাবা।

গত শনিবার রাত ২:১৫ নাগাদ জম্মু-কাশ্মীরের অবন্তীপুরায় সিআরপিএফ ট্রেনিং ক্যাম্পে দুজন সশস্ত্র জঙ্গি ঢুকে পড়ে এবং আক্রমণ করে ক্যাম্পে থাকা সেনাদের। তাদের সঙ্গে ছিল অত্যাধুনিক অস্ত্র, গ্রেনেড লঞ্চার ও অত্যাধুনিক স্বয়ংক্রিয় রাইফেল। অন্ধকারে কোনো রকম ভাবে জঙ্গিদের ঠেকিয়ে রাখতে সক্ষম হন জওয়ানরা। ভোরের আলো ফুটতেই পালটা অপারেশন শুরু করে সেনা, আধাসেনা ও পুলিশ। নিকেশ হয় কিশোর সহ দুই জঙ্গিই। রাতে অতর্কিতে হামলা চালানোয় মৃত্যু হয় সেনাবাহিনীর ৫ জন জওয়ানের।

অপরদিকে, সীমান্তে পুলওয়ামাতে অস্ত্র বিরতি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান। পাকিস্তানের সেনা ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি চালায়। কেন্দ্রীয় সরকার এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: