নির্দেশিকা জারি করে দেশজুড়ে সোশ্যাল মিডিয়াকে বন্ধ করছে শিক্ষা মন্ত্রক!

বিজ্ঞান যত উন্নতি করছে মানুষ ততই প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে উঠছে। আর দিনে দিনে এতে আরও সমস্যা বেড়ে চলেছে। মাধ্যমিক, এসএসসি এইসব ধরণের পরীক্ষা চলাকালীন প্রশ্নপ্রত্র ফাঁস হয়ে যাওয়ার মতো ঘটনা ঘটছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। আর আটকাতে ফেসবুক-ট্যুইটারের মতো সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলি বন্ধ রাখা সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রক৷ দেখা যাচ্ছে, পঠনরত পডু়য়াদের জন্য অভিভাবকরা মোবাইল সহজলভ্য করে দেওয়ায় সমস্যা আরও বেড়েই চলেছে। মোবাইল নিয়ে কোনওভাবেই আটকানো যাচ্ছে না। আর স্মার্টফোন ছাড়া এখন পুরনো দিনের ফোন হাতে গোনা কয়েক জনই ব্যবহার করেন। কয়েকবছর আগেও পরীক্ষা হলে বসে এসএমএসের মাধ্যমে দেদার টুকলি চলত। এখন তার জায়গা নিয়েছে স্মার্টফোনগুলি। পরীক্ষা চলাকালীন সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগানো হচ্ছে। পরীক্ষার আগে বা মাঝে ফাঁস হয়ে যাচ্ছে প্রশ্নপত্র। আর সঙ্গে সঙ্গে উত্তর ভেসে আসছে ফেসবুক বা ট্যুইটারে। কাউকে ফোন আনা আটকানো না যাক, যার মাধ্যমে এই সব কাজ করা হচ্ছে, সেটাকেই বন্ধ করার পন্থা নিয়েছে বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রক। যা অন্য়ান্য দেশের মতো ভারতের জন্যও শেখার মতো বিষয়।

গত পয়লা ফেব্রুয়ারি থেকে বাংলাদেশে শুরু হয়েছে ক্লাস টেনের  মাধ্যমিক স্তরের পরীক্ষা৷ যে যে দিনে পরীক্ষা ফেলা হয়েছে, সেই দিনগুলিতে সোশ্যাল সাইটগুলিকে বন্ধ করে দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার৷ তবে, গোটা দিনের জন্য নয়। পরীক্ষা চলাকালীন নির্দিষ্ট দিনগুলিতে সারা দেশেই দু-তিন ঘণ্টার জন্য ফেসবুক, ট্যুইটারের মতো সোশ্যাল সাইটের মোবাইল অ্যাপগুলির বন্ধ করে দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার। সব পরীক্ষা পর্ব মেটা না পর্যন্ত এরকম ভাবেই চলতে থাকবে৷

গতমাসে সে দেশের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা আগাম জানিয়েছিলেন দেশের মানুষকে। তিনি এই কথা জানিয়েছিলেন, কোনও পরীক্ষার্থী বা শিক্ষক, মোবাইল ফোন বা কোনও বৈদ্যুতিন যন্ত্র নিয়ে  পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে পারবেন না। যদি কেউ ধরা পড়েন, তাহলে তার বিরুদ্ধে পুলিশী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তৎক্ষণাৎ।

সরকারি সিদ্ধান্ত যাতে ঠিকমতো কার্যকর হয়, তার জন্য বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশন’কে চিঠি দিয়ে শিক্ষামন্ত্রক আগে থেকে অনুরোধ জানায়। জানানো হয়, কোন কোন দিনগুলিতে বন্ধ রাখতে হবে ফেসবুক ও ট্যুইটার। এখানেই শেষ নয়, নির্দেশিকা জারি করে  পরীক্ষার দিন সব কোচিং সেন্টারগুলিও বন্ধ রাখা হচ্ছে বলে খবর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: