পরনে ২৫ কোটি টাকার শাড়ি; বিসর্জনে অসুবিধা সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারে! দেখুন কি হলো তারপর ..

কলকাতার সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারে পুজোর মূল আকর্ষণ ছিল ৩০ কেজি ওজনের সোনার শাড়ি। নবমীর দিন কিছু অসুবিধায় ১৪ ঘন্টা বন্ধ ছিল প্রতিমা দর্শন। যে কারণ পুজোর আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছিল তা এখন দুশ্চিন্তার প্রধান কারণ। বর্তমানে সেই কারণেই দুশ্চিন্তায় সন্তোষ মিত্র স্কয়ারের পুজো উদ্যোক্তারা। দুশ্চিন্তার কারণও প্রতিমার পরনের ৩০ কেজি ওজনের সোনার শাড়ি যার দাম প্রায় ২৫ কোটি টাকা।

সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের পুজো এ বছর উদ্বোধনের পর থেকেই নজর কেড়েছে। তাদের পুজোর প্রধান আকর্ষণ ছিল দূর্গা প্রতিমার গায়ে থাকা ৩০ কেজি ওজনের ২৫ কোটি টাকার সোনার শাড়ি। সেই শাড়ির ডিজাইন করেছিলেন অগ্নিমিত্রা পল। সোনার যোগান দেয়া হয় সেখানে সেনকো গোল্ড অ্যান্ড জুয়েলারির তরফ থেকে। স্বাভাবিকভাবেই মধ্য কলকাতার এই প্রতিমা দেখতে প্রতিবারের মতো এবারও শত শত মানুষের ভিড় উপচে পড়ে।

খরচ ১০ কোটি টাকা; দেখে নিন এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে ব্যয়বহুল দূর্গা মন্ডপ!

পুজো শেষে এবার পালা প্রতিমা নিরঞ্জনের। আর এর ফলেই বিপাকে পড়েছেন সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের পুজো উদ্যোক্তারা। সাধারণত নিয়ম মত নিরঞ্জনের সময় প্রতিমাকে শাড়ি সমেত ভাসিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে পরিস্থিতি খুবই জটিল। ৩০ কেজি ওজনের ২৫ কোটি টাকা মূল্যের সোনার শাড়ি পরানো প্রতিমা নিরঞ্জন করা অসম্ভব ব্যাপার। আবা শাড়ি খুলে নিয়ে বস্ত্রহীন অবস্থায় প্রতিমা নিরঞ্জন করাও দৃষ্টিকটূ হয়ে দাঁড়াবে। এই কারণে বিকল্প ব্যবস্থা সন্ধান করছেন সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের পুজো কমিটির কর্তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: