ভিডিও : স্টাম্প মাইকে ধরা পড়ল চেস্ট প্যাড নিয়ে বিরাটের স্লেজিং!

ছয় ম্যাচের সিরিজ এক ম্যাচ বাকি থাকতেই দখল করে নিয়েছে ভারত। সিরিজ ভারতের পক্ষে ১-৪ ব্যবধানে। অবশ্য সিরিজ দখলটা আগেই হতে পারত। কিন্তু, জোহানেসবার্গে চতুর্থ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা জিতে সিরিজের আশা জিইয়ে রেখেছিল। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত ভারতের দখলেই এলো। পিঙ্ক ওয়ান-ডে ম্যাচে ভারতীয় ক্রিকেট দল যে ভুলগুলি করেছিল, সেগুলি শুধরানোর চেষ্টা করেছে অনেকটাই। পোর্ট এলিজাবেথে ৭৩ রানের ব্যবধানে বড় জয় পায় ভারত। টেস্ট সিরিজ খোয়ানোর পর একদিনের সিরিজ যে এভাবে একপেশে ক্রিকেট খেলে জিতে নেবে ভারত, এমনটা কল্পনাই করা যায়নি।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজ জেতায় আইসিসি ব়্যাঙ্কিংয়ে ভারতের রেটিং বাড়বে এবং শীর্ষস্থানটাও অনেকদিন বিরাটের হাতে থাকা নিশ্চিত।

মঙ্গলবারের ওয়ান-ডে ম্যাচটা ভারতের সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও চায়নাম্যান স্পিনার কুলদীপ যাদবের ছিল। একজনের ব্যাটে শতরান এসেছে। আর অপরজনের কব্জির মোচড়ে দিশেহারা হয়ে পড়ে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে পা রাখার পর থেকে একেবারেই ফর্মে ছিলেন না রোহিত। মাঝমধ্য়ে একবার যা ঝলক দেখিয়েছিলেন টেস্টে, তবে ওয়ান-ডে সিরিজে একটানা হতাশ করে আসছিলেন। সেইসব দুঃসময় কাটিয়ে ওডিআই ক্রিকেটে তাঁর সতরোতম শতরান করেন রোহিত। আর কুলদীপ বলহাতে চার উইকেট তুলে নিয়ে ভারতের জয় নিশ্চিত করে দেন।

ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির জন্য়ও একদিনের সিরিজটা ভালো কেটেছে। পাঁচ ম্যাচে দু’টি শতরান আর একটি অর্ধশতরানসহ ৪২৯ রান।  মঙ্গলবার পঞ্চম ওয়ান-ডে ম্যাচে আউট না হলে আরও একটি ভালো ইনিংস বেরিয়ে আসত পারত তাঁর ব্যাট থেকে।

এদিকে, গত ম্য়াচে একটি মজাদার ঘটনার সঙ্গে বিরাট জড়িয়ে পড়েছেন। খেলার মাঠে ফিল্ডিং করার সময় ক্রমাগত নানা রকম মজাদার কথা বলা অভ্যাস তাঁর। আর স্টাম্প মাইকে তা ধরাও পড়ে। দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসে তাদের বাঁহাতি বোলার তাবারিজ শামসি তখন ক্রিজে।

ভারতীয় ইনিংসে বিরাট যখন ব্যাট করছিলেন সেই সময় শামসি স্লেজিং করেছিলেন তাঁকে। সুযোগ পেয়ে বিরাট সেই স্লেজিং ফিরিয়ে দেন। পাল্টা পিছনে লাগতে শুরু করেন শামসির। এখানে বলে রাখা ভালো, আইপিএল ক্রিকেটে শামসি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ফ্র্যাঞ্চাজির সদস্য ছিলেন। আর  বিরাট আরসিবি টিমের ক্যাপ্টেন।  ফলে, চেনাজানাটা আগে থেকেই রয়েছে।

স্টাম্প মাইকে ধরা পড়ে, কোহলি শামসিকে উদ্দেশ্য করে বলছেন, ”চেস্ট প্যাড শাম্মো (শামসি), আরে চেস্ট প্যাড পরে আছো।”

বিরাটের কাছে পাল্টা খোঁচা খেয়ে খানিকটা ঘাবড়ে গিয়েছিলেন কি না, জানা নেই। তবে, তার পরের বলেই উঁচু শট নেওয়ার চেষ্টা করেন শামসি। আর তা অনবদ্য ভঙ্গিমায় একহাতে লুফে নেন হার্দিক পান্ডিয়া। ক্যাচ ধরার সময় শিখর যেভাবে ছুটে আসছিলেন, মনে হয়েছিল, হার্দিকের সঙ্গে তাঁর ধাক্কা না লেগে যায়।

দেখে নিন ভিডিও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: