এই পাঁচ সুন্দরী ক্রিকেট সঞ্চালকদের দেখলে চোখ ফেরাতে পারেন না ফ্য়ানেরা…

ক্রিকেট খেলার সঙ্গাটা এখন বদলেছে। আগের মতো ম্য়াড়ম্য়াড়ে নেই। এখন ক্রিকেট মানে প্রচুর অর্থ নিয়ে হাজির স্পনসররা। আর দর্শকদের টানতে সুন্দরী মহিলারা। শ্রেফ ক্রিকেট খেলাতেই ক্রিকেটটা এখন সীমাবদ্ধ নেই। ক্রিকেটের সঙ্গে এখন নানান টক শো করতে হয় ম্য়াচের আগে-পরে। বিশেষজ্ঞদের হাজির করা হয়। আর অনুষ্ঠান সঞ্চালনার জন্য় থাকেন লাবণ্য়ময়ীরা। পরনে হট পোশাক, মুখে দুষ্টু-মিষ্টি হাসি – কোনও পুরুষই এমন মহিলাদের না দেখে মুখ ফিরিয়ে থাকতে পারবেন না। আর ক্রিকেট খেলা সম্প্রচারকারী চ্য়ানেলগুলি সুন্দরী রমনী ইউএসপি’কেই টার্গেট করেছে চ্য়ানেলের টিআরপি বাড়ানোর জন্য়। আসুন দেখে নিই টেলিভিশনের এমন পাঁচ হট ক্রিকেট অ্য়াঙ্কারকে।

৫. সোনালি নাগরাণী

সোনালি অনেক ক্রিকেট শো সঞ্চালনা করে ফেলেছেন এর মধ্য়ে। ২০০৮ সালে আইপিএলের প্রথম সংস্করণে এই প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ইন্টারন্য়াশনাল সঞ্চালিকা ছিলেন। এছাড়া, আইপিএল এবং টি-২০ বিশ্বকাপের সময়ও এক্সট্রা ইনিংস হোস্ট করেছেন সোনালি। ভারতে বিশ্বকাপের সময় ম্য়াচ প্রেজেন্টার ছিলেন ২০০৪ ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া বিউটি পেজান্টের এই ফাইনালিস্ট।

৪. অর্চনা বিজয়া

ইনি আবার ক্রিকেট ইতিহাসের গ্ল্য়াম শো-এর অন্য়তম মুখ। নিও স্পোর্টসের হয়ে ক্রিকেট সংক্রান্ত শো-তে প্রথম মুখ দেখানো। তখন নিও স্পোর্টসের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের চুক্তি ছিল ম্য়াচ দেখানো নিয়ে। ‘ট্য়ুর ডায়েরি ফর এক্সট্রা কভার’ এবং ‘ক্রিকেট…মশালা মারকে’র মতো জনপ্রিয় শো হোস্ট করার পর আইপিএলে ঝাঁপ দেন অর্চনা। তারপর থেকে ম্য়াচের আগে আর পরে হওয়া এক্সট্রা ইনিংস নামে শো করে আসছেন আইপিএলের জন্য়।

৩. করিশ্মা কোটক

ব্রিটিশ-ভারতীয় এই মডেল বিগবস-৬’এ প্রতিযোগী ছিলেন। সেখান থেকে ক্রিকেট শো’তে জায়গা করে নেওয়া প্রেজন্টার হিসেবে। ছিপেছিপে চেহারার করিশ্মা ‘মি এগেনস্ট মাইসেলফ’ নামে একটি মিউজিক ভিডিও’তে অভিনয়ও করেছেন। আইপিএল ষষ্ঠ সংস্করণ থেকে ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে পরিচত মুখ। দেশি-বিদেশি কয়েকজন বিখ্য়াত ক্রিকেটারদের ইন্টারভিউ নিতে গিয়ে তাঁদের ব্য়ক্তিগত বন্ধুত্বও হয়ে গিয়েছেন মিস কোটক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: