চোটগ্রস্ত ক্রিস লিন আইপিএল ২০১৮ কি খেলবেন? জানিয়ে দিলেন

আসন্ন আইপিএল মরশুমে ক্রিস লিনের উপলব্ধতা নির্ভর করবে স্ক্যান রেজাল্টের উপর যা এই সপ্তাহে তিনি করবেন। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজের ফাইনাল ম্যাচে চোট পান লিন। তিনি সোলডার ডিসলোকেডে কষ্ট পাচ্ছেন যা তাকে পাকিস্থান সুপার লিগ থেকেও বাইরে করে দিয়েছে। এই অবস্থায় আইপিএলে তার অংশ নেওয়া নির্ভর করবে এই স্ক্যান রিপোর্টের উপর যাতে তিনি বসতে চলেছেন। কলকাতা নাইট রাইডার্স তাকে কেনে ৯.৬ কোটি টাকার বিশাল অ্যামাউন্টে। যদিও এখন তার আঘাত খুবই ভুল সময়ে এসেছে এবং কেকেআর তার ফিটনেস নিয়ে ভীষণই চিন্তায়। গত বছরও তিনি বেশিরভাগ সময়েই বেঞ্চে বসে কাটিয়েছিলেন। কেকেআরের তৃতীয় ম্যাচে তিনি কাঁধের চোটে ভুগেছিলেন। তারপরই তাকে একমাস বেঞ্চে বসেই কাটাতে হয়েছিল। সেই সময় তাকে ছেড়ে দেওয়ার বদলে কেকেআর অপেক্ষা করেছিল এই ব্যাটসম্যানের ঠিক হওয়ার জন্য। শেষ পর্যন্ত তিনি মে মাসে তার পরবর্তী ম্যাচ খেলেছিলেন। এটা থেকে এটাই প্রমানিত হয় যে এ বছরও কেকেআরের তার কাছ থেকে  বড়  কিছু আশা করে আছে এবং তিনি তাদের জন্য যথেষ্টই দরকারী। অন্যদিকে তার এই আঘাতই যথেষ্ট তাকে এই মুহুর্তে অধিনায়কত্বের দৌড় থেকে অনেকটা পিছিয়ে দেওয়ার জন্য। কিছুদিন আগেই কেকেয়ারের হেড কোচ জ্যাক কালিস বলেছিলেন যে লিন অধিনায়কত্বের চাকরীর জন্য অন্যতম দাবীদার। লিনও জানিয়েছিলেন যে তিনিও কেকেআরের অধিনায়কত্ব নেওয়ার জন্য মুখীয়ে রয়েছেন।

যদিও আবার তার এই আঘাতে কেকেআর তাকে অধিনায়ক হিসেবে ভাবছে না, কারণ কোনও দলই চাইবে না এমন একজনকে অধিনায়ক করতে যাকে বেশিরভাগ সময়েই বেঞ্চে বসে কাটাতে হতে পারে। এবং এই মুহুর্তে রবীন উথাপ্পাই সম্ভবত একমাত্র ব্যক্তি যার হাতে অধিনায়কত্ব তুলে দেওয়া হতে পারে। গত সাতটি মরশুমে গৌত্ম গম্ভীর দলকে আইপিএলে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এবং সূর্য কুমার যাদব তার সহকারী ছিলেন। এ বছর দলের কাছে না তো গম্ভীর রয়েছেন না সূর্য কুমার। ফলে তাদের এখন নতুন অধিনায়কের খোঁজ চলছে। এছাড়াও নিলামে কেকেআর এমন কাউকে কেনে নি যার মধ্যে সম্ভাব্য অধিনায়কত্বের মেটিরিয়াল রয়েছে, যা সত্যিই অবাক করার মত ব্যাপার। যদিও এখন অধিনায়কত্বের পোষ্টের থেকেও বেশি লিনের আঘাত নিয়ে বেশি চিন্তিত। আসন্ন আইপিএলের শুরুর এখনও প্রায় দেড় মাস বাকি রয়েছে, এবং লিনের এই টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার সম্ভবনা যথেষ্ট উজ্জ্বল রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: