আইপিএল ২০১৮ : ইডেনে কেকেআরের বিরুদ্ধে মুম্বাইয়ের প্রথম একাদশ!

পরপর দু’টি ম্যাচ জিতে গা ঝাড়া দিয়ে উঠেছে রোহিত শর্মার দল। বিশেষ করে ওয়াংখেড়েতে রান ডিফেন্ড করে ম্যাচ জেতাটা মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে বাড়তি অক্সিজেন জুগিয়েছে। নাহলে যেভাবে একনাগাড়ে হারাতে শুরু করেছিল তিনবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়নরা, তাতে এতক্ষণে সবার আগে একাদশ আইপিএল থেকে বিদায় নেওয়া নিশ্চিত করে ফেলত। তার চেয়ে বলা ভালো, বিরাট কোহলির আরসিবি’র সঙ্গে লড়াই বেঁধে যেত – কে আগে বিদায় নেয়! টিমের সেরা অলরাউন্ডার কায়রন পোলার্ডকে বাদ দিয়ে প্রোটিয়া অলরাউন্ডার জাঁ পল ডুমিনিকে প্রথম একাদশে আনার পর থেকে টিমের ভাগ্য বদলেছে বলতে হবে। দেরি হলেও, এখনও আশা আছে। বিনা লড়াইয়ে একবিন্দু জমিও ছাড়তে জানে না মু্ম্বই ইন্ডিয়ান্স। হার না মানা অদম্য মনোভাব – এই টিমটার বরাবরের সঙ্গী।

দশ ম্যাচে আট পয়েন্ট। মানে হাতে এখনও চারটি ম্যাচ আছে। ওই চারটি জিতলে প্লে-অফ ভালোভাবেই কোয়ালিফাই করবে তারা। গত রবিবার ওয়াংখেড়েতে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে হারিয়েছিল নীতি আম্বানির টিম। সেই তাদের বিরুদ্ধেই দু’দিন যেতে না যেতেই আবার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। বুধবারের (৯ মে) ম্যাচ ইডেনে।আইপিএল ক্রিকেটের ইতিহাসে এই কেকেআর টিমের বিরুদ্ধেই সবচেয়ে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। দুই টিমের সাক্ষাতে কেকেআর’কে সতেরোবার হারিয়েছে মুম্বই। টিমের অধিনায়ক রোহিত, আইপিএল ক্রিকেটে তাঁর সর্বাধিক রানটিও এই কেকেআরের বিরুদ্ধে করেছেন। আর একটা কথা অবশ্যই মে রাখতে হবে। ইডেন কেকেআর-এর ঘরের মাঠ হতে পারে, কিন্তু এই মাঠ রোহিতের জন্য খুব পয়া। আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে তিনটি ডাবলের মধ্যে এখানেই একটি। আইপিএল মঞ্চে সেরকমই আর একটা ঐতিহাসিক ইনিংস পাওয়া যাবে কি?

মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সম্ভাব্য একাদশ –

১. সূর্যকুমার যাদব

ম্যাচ – ১০, রান – ৩৯৯, গড় – ৩৯.৯০, স্ট্রাইক রেট – ১৩২.১১, সর্বোচ্চ স্কোর – ৭২।

২. এভিন লিউইস

ম্যাচ – ৯, রান – ২৪৭, গড় – ২৭.৪৪, স্ট্রাইক রেট – ১৩৪.৯৭, সর্বোচ্চ স্কোর – ৬৫।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: