এই বার আইপিএলে সামিকে খেলতে না দেবার জন্য, জানেন কি করলেন হাসিন?

ভারতের জোরে বোলার মহম্মদ শামির বিরুদ্ধে তদন্ত করে তাঁকে রেহাই দিয়েছে আইসিসি-র দুর্ণীতি দমন শাখা। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড আবার চুক্তি করেছে তাঁর সঙ্গে। কিনতি শামির স্ত্রী হাসিন জাহান এখনও অনড়। শামির বিরুদ্ধে বিষদগার থামার নাম নেই। এবার আইপিএলে তাঁর খেলা বন্ধ করতে উঠে পড়ে লাগলেন হাসিন। শামির দল দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের সিইও হেমন্ত দুয়ার সঙ্গে দেখা করে শামিকে আইপিএলে খেলতে না দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন হাসিন।

সংবাদসংস্থা এএনআই-কে হাসিন বলেছেন, ‘আমি হেমন্ত স্যারকে বলেছি, শামি যতক্ষণ না পারিবারিক সমস্যা মেটাচ্ছে, ততক্ষণ ওকে আইপিএল-এর দলের রাখা উচিত নয়।’ অবশ্য এই বিষয়ে মুখ খোলেননি দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের কর্মকর্তারা।
প্রসঙ্গত, ভারতের পেসার মোহাম্মদ শামির সঙ্গে আইপিএলেই পরিচয় হয়েছিল কলকাতার মডেল কন্যা হাসিন জাহানের। প্রথমে পরিচয় থেকে প্রণয়, এরপর ২০১৪ সালে দুজন বসেছিলেন বিয়ের পিঁড়িতে।

ভালোই চলছিল দাম্পত্য জীবন। মাঝে দু-একটা সাক্ষাৎকারে হাসিন যেমন স্বামীর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন, তেমনি শামিও জীবনসঙ্গী ও সন্তানকে ‘নিজের জীবন’ বলে মর্যাদা দিয়েছেন। কিন্তু হঠাৎ এক ঝড়ে সেই সুখের সংসার এখন এলোমেলো!
শামির বিরুদ্ধে বিবাহবহির্ভূত একাধিক সম্পর্কে জড়ানোর অভিযোগ তুলেছেন তাঁরই স্ত্রী হাসিন। জানিয়েছেন, তাঁকে মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতনও করার পাশাপাশি শামি এবং তাঁর পরিবার হাসিনকে হত্যার চেষ্টাও করেছিলেন বলে অভিযোগ। বিভিন তরুণীর সঙ্গে শামির ঘনিষ্ঠ কথোপকথনের স্ক্রিণশট সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন হাসিন।

সংবাদমাধ্যম এবিপি নিউজকে হাসিন বলেছিলেন, ‘আমি যা পোস্ট করেছি, সেসব সামান্য নমুনামাত্র। শামির আচরণ এর চেয়ে আরও জঘন্য। একাধিক মেয়ের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক রয়েছে।’ হাসিনের দাবি, শামির বিএমডব্লিউ গাড়ির সিটের নীচ থেকে তিনি একটি ফোন এবং কন্ডমের প্যাকেট পেয়েছিলেন। ইন্ডিয়া টিভিকে হাসিন জানিয়েছিলেন, ‘আমি ধর্মশালায় তার সঙ্গে যেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু শামি রাজি হয়নি। উল্টো সেখান থেকে ফোনে আমাকে অপমান করেছে। ভারতীয় দল যেখানে সফর করুক না কেন, কুলদীপ নামের একটি লোক শামিকে মেয়ে সরবরাহ করে। বিসিসিআই এ ব্যাপারে কিছুই করছে না।’

তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে শামি বলেন, ‘ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে ওঠা সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা। আমার কেরিয়ার নষ্ট করার জন্য গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে।’ যদিও তাঁদের মেয়ের মুখের দিকে তাকিয়ে হাসিনের সঙ্গে সমস্ত ঝামেলা মিটিয়ে নেওয়ার পক্ষপাতী ছিলেন মহম্মদ শামি। কিন্তু হাসিন জাহান নারাজ।

এবার আইপিএলে শামির খেলা বন্ধ করতে চান হাসিন। সেই কারণেই তিনি দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের সিইও-র সঙ্গে দেখা করে শামিকে দলে না রাখার অনুরোধ জানিয়েছেন। বলেছেন, পারিবারিক সমস্যা না মেটা পর্যন্ত যেন শামিকে খেলতে না  দেওয়া হয়। একই অভিযোগ করেছিলেন ভারতীয় বোর্ডের কাছেও। শামিকে চুক্তির বাইরেই রেখেছিল তারা। তবে তদন্তের পর ভারতীয় স্পিডস্টারকে ক্লিনচিট দেয় বিসিসিআই-এর দুর্নীতি দমন শাখা। এরপরেই তাঁর সঙ্গে নতুন করে চুক্তি করে তারা।

 

বিসিসিআই-এর কার্যনির্বাহী সভাপতি সি কে খন্না জানিয়েছেন, ‘হাসিন জাহান আমার সঙ্গে দেখা করে তাঁর অভিযোগের বিষয়টি দেখার অনুরোধ জানান। আমি তাঁকে বলি, এটা তাঁদের ব্যক্তিগত বিষয়। পরিবারের মধ্যেই বিষয়টি মিটিয়ে নেওয়া উচিত। তাতে শামি সহ সবারই ভাল হবে। কারণ, শামি ভারতীয় দলে আছেন। আমরা চাই তিনি আইপিএল ও ইংল্যান্ড সফরে ভাল পারফরম্যান্স দেখান।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: