নিন্দুকদের একহাত নিলেন রবি শাস্ত্রী, একি বলে দিলেন তিনি…

এই সময়ে একজন সেলিব্রিটির জন্য, বিশেষ করে ভারতীয় ক্রিকেট দলের সঙ্গে যে জড়িত, তাঁর সোশাল মিডিয়াতে টিকে থাকা সহজ ব্যাপার নয়। ভারতীয় ক্রিকেটের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী এখন বেশিরভাগ ‘ট্রল’-এরই মুখ্য চরিত্র, যা কিছুই তিনি বলেন, সেটাই তাঁর বিরুদ্ধে এখন ভাইরাল হয়ে ওঠে।

গাল্ফ নিউজের সাথে এক সাক্ষাৎকারে তিনি কতটা টুইটার অথবা ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করেন সেই বিষয়ে বলেন। তিনি বলেন তিনি শুধু টুইট করেন, তবে কিছু পড়ে বিরক্ত হওয়ার সময় তাঁর নেই। তাঁরই কথায়, তাঁর কাছে মাত্র একটা বা দু’টো পত্রিকা পড়ার সময় থাকে, এবং তিনিও সেটাই ভালোবাসেন। যদিও দুবাই থেকে এশিয়া কাপ জয় করে ফিরেছে ভারত, তবুও ভারতে এখনও চর্চা এবছরেই ইংল্যান্ডের মাটিতে সেই লজ্জার হার নিয়েই। যখনই তিনি ভারতকে ইংল্যান্ডের মাটিতে কঠিন পরিস্থিতিতে নিজেদের চরিত্র দেখানোর জন্য শুভেচ্ছা জানান, তখনই তিনি ট্রল-এর শিকার হন।

ভারতীয় ক্রিকেটের বর্তমান কোচ এই বিষয়ে বলেন,

‘আমি রাতে খুব ভালোই ঘুমায় কারণ কারণ আমি আমার যুগের অভ্যাসেই অভ্যস্ত যেখানে সবাই এক বা দু’টো খবরের কাগজ পড়েন। তো আমার ওইটুকুর জন্যই সময় রয়েছে। আমি হয়তো টুইটার আর ইন স্টাগ্রামে রয়েছি। কিন্তু আমি কিছুই পড়িনা, শুধু টুইট করি।’

৫৬ বছর বয়সী এই কোচ ফের বিশেষজ্ঞদের আতস কাঁচের তলায় যে আসবেন তা বলাই বাহুল্য। কারণ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৩টে ওয়ানডে, ৪টে টেস্ট এবং আরও ৩টে টি-টোয়েন্টি খেলতে ভারত যাবে অস্ট্রেলিয়া সফরে। যেহেতু অস্ট্রেলিয়ার দলের অনেকেই চোটপ্রাপ্ত রয়েছে, তাই ‘মেন ইন ব্লু’ এর কাছে এটা এক সুবর্ণ সুযোগ ওদের মাঠেই ওদেরকে হারাবার। শাস্ত্রী নিজেও বদ্ধপরিকর নিজের ১০০ শতাংশ দেওয়ার জন্য, এবং ট্রলের ক্ষেত্রে তাঁর ট্রল সম্পর্কে না জানাটাই তাঁর ফোকাস থাকার জন্য সবচেয়ে বেশি কার্যকরি।

শাস্ত্রী আরও বলেন,

‘যখন তুমি নিজে নিজের ওপর আত্মবিশ্বাসী, তখন তোমার আর কারও কোনও কথাতেই যায় আসবে না। তুমি জানো যে তুমি কাজটার জন্য ১০০ শতাংশ প্রদান করছ। বাকিটা হল যে আমি একদমই চিন্তিত নয়। আমি যদি লোকের কথা নিয়ে চিন্তা করতে শুরু করি, তবে অন্য অনেক কিছুই আরও খারাপ হতে শুরু করবে। তাই আমি বলবো কিছু জিনিস সম্পর্কে না জেনে থাকাও বেশি ভালো।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: