ইংল্যান্ডের মাটিতে রেকর্ড, মাত্র ৬১ বলে শতরান করলেন স্মৃতি মান্ধানা!

ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলে স্টার হয়ে ওঠে প্রতিভার জোরেই। টিকে থাকাটাও পারফর্ম করেই। মিতালি রাজ পরবর্তী ক্রিকেট প্রজন্ম সুরক্ষিত তাঁর হাতেই। আগামী দিনে তাঁকে দেখে দেশের অনেক বেটি ক্রিকেট খেলতে যে এগিয়ে আসবেন, তা নিয়ে অনেক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞই মত দিয়েছেন। মেয়েটার সঙ্গে ভারতের প্রাক্তন তথা সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির অনেক মিল রয়েছে। আর সেটা ছোটোবেলা থেকেই। সৌরভ যেমন ছোটোবেলায় প্রথম যেদিন পেশাদারীভাবে ক্রিকেট খেলবেন ঠিক করে ব্যাটটা ধরেন, সেটা বাঁহাতেই ধরেছিলেন। কারণ, তাঁরা দাদারা সবাই বাঁহাতে ব্যাট করতেন।

আর ভারতীয় মহিলা দলের তরুণ তুর্কি স্মৃতি মন্ধনাও তাঁর দাদাদের দেখে ক্রিকেটার হবেন ঠিক করেন। আর বাঁহাতেই ব্যাট ধরেন। অথচ দু’জনেই ডানহাতে সবকাজ করেন। সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গে আরও একটি কারণে মিল রয়েছে স্মৃতির। ইংল্যান্ডের মাটি দাদার যেমন বড্ড পয়া ছিল ক্রিকেট কেরিয়ারে, তেমনই পয়া স্মৃতির জন্যও।

চলতি উইমেন’স ক্রিকেট সুপার লিগে দুর্দান্ত পারফর্ম্যান্স দেখাচ্ছেন ভারতের তরুণী। গত শুক্রবার (৩ অগস্ট) তাঁর দুর্দান্ত শতরান উপহার দিয়েছেন স্মৃতি। আর তাঁর শতরানের দাপটে এই টি-২০ প্রতিযোগিতার একটি ম্যাচে ওয়েস্টার্ন স্টর্ম সাত উইকেটে হারিয়েছে ল্যাঙ্কাশায়ার থান্ডারকে।

৬১ বলের ইনিংসে ১৮টি বড় স্ট্রোক

ভারতের এই মহিলা তারকা বর্তমানে যে ফর্মে আছেন, তাতে সুপার লিগে খেলা কোনও মহিলা বোলারই তাঁকে থামানোর রাস্তা খুঁজে পাচ্ছেন না। শুক্রবার স্মৃতি দলের হয়ে ১৫৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে একাই ১০২ রান করে দেন। বোঝাই যাচ্ছে, কতোট দাপুটে ব্যাটিংয়ের নমুনা তুলে ধরেন তিনি। আর সেই সঙ্গে ইতিহাসও গড়ে ফেলেন তিনি। স্মৃতি ভারতীয়দের মধ্যে প্রথম মহিলা ক্রিকেটার যিনি টি-২০ আসরে শতরান করলেন।

প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান তোলে থান্ডার টিম। তাদের হয়ে অ্যামি স্যাটারওয়েট ৮৩* রানের একটি ঝকঝকে ইনিংস খেলেন। কিন্তু, স্মৃতির ৬১ বলের ইনিংসটির দাপটে তা আড়ালে চলে যায়।

রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা কিন্তু খুব একটা ভালো হয়নি ওয়েস্টার্ন স্টর্মের। রেচল প্রিস্ট শুরুতে ডাগ আউটের পথ ধরেন পাঁচ রানের মাথায়। এরপর মন্ধনা ও হিদার নাইট টিমকে সামলান ৪১ রানের পার্টনারশিপ করে। ল্যাঙ্কাশায়ার থান্ডারের এমা ল্যাম্ব ওই জুটিতে ভাঙন ধরান।

কিন্তু, ওই ২টি সাফল্যের পর থান্ডারকে ম্যাচে আর কর্তৃত্ব দেখাতে দেয়নি স্মৃতি ও স্টেফানি টেলরের জুটি। তাঁরা সেখান থেকে আরও ১০৫ রান যোগ করেন। ১৯ ওভারেই স্টর্ম টিম জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায়। শতরান করার পথে স্মৃতি ১২টি চার ও ৬টি ছয় মারেন।

গত জুনে মহিলা বিশ্বকাপের সময় থেকে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের অন্যতম স্তম্ভ হয়ে ওঠা স্মৃতি এবার সুপার লিগে এখনও পর্যন্ত পাঁচটি টি-২০ ইনিংসে ২৮২ রান করেছেন। ২টি অপরাজিত ইনিংস রয়েছে এর মধ্যে। টুর্নামেন্টে ব্যাটিং গড় ৯৪.০০, আর স্ট্রাইক রেট ১৯০.৫৪।

উল্লেখ্য, ভারতের হয়ে ৪১টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা স্মৃতি ১৪৬৪ রান করেছেন। তাতে শতরানের সংখ্যা তিনটি এবং এগারোটি অর্ধশতরান রয়েছে। এছাড়া, দেশের হয়ে ৪২টি টি-২০ ম্যাচে ৮৫৭ রান করেছেন। গড় ২৩.১৬।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: