ধোনি সেদিন বেঁকে না বসলে আজ বিরাট কোহলিকে হয়তো কেউ চিনতোই না!

কোন কোন রেকর্ড ভাঙতে চলেছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি তা নিয়ে নিরন্তর গবেষণা চলছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের। এই মুহূর্তের দুনিয়ার সমস্ত বোলারদের রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছেন কোহলি। পৃথিবীর সব দেশে (যেখানে যেখানে ক্রিকেট খেলা হয়), সব রকম পিচে, সব রকম কন্ডিশনে, সব রকম ফর্ম্যাটে অবলীলায় ঝুড়ি ঝুড়ি রান করে চলেছেন তিনি। কিছুদিন আগের ইংল্যান্ড সফরে টেস্ট সিরিজে অ্যান্ডারসনদের বিরুদ্ধে রান করে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে তিনিই এখন বিশ্ব ক্রিকেটের রাজা। কিন্তু এই রাজার রাজ্যাভিষেক হওয়া পড়েছিল সংশয়ের মুখে।

মহেন্দ্র সিং ধোনি না থাকলে আজকের বিরাট কোহলিকে পেতাম কি না সন্দেহ। না, কথাটা আমরা বলছি না, বলছেন নজফগড়ের নবাব বীরেন্দ্র সেওয়াগ। সেটা ২০১২ সাল। ভারত অস্ট্রেলিয়া সফরে। ধোনি তখন ক্যাপ্টেন। প্রথম দুটো টেস্টে হেরে গিয়ে প্রশ্নের মুখে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের টেকনিক এবং আরও বেশি করে টেম্পারামেন্ট। নির্বাচকরা চাইছেন কোহলিকে বসিয়ে রোহিত শর্মাকে খেলাতে, কিন্তু ধোনি চান বিরাটকেই।

MUMBAI, INDIA – MARCH 31: MS Dhoni, Captain of India and Virat Kohli of India looks on during the ICC World Twenty20 India 2016 Semi Final match between West Indies and India at Wankhede Stadium on March 31, 2016 in Mumbai, India. (Photo by Ryan Pierse/Getty Images)

নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থেকে পার্থে তৃতীয় টেস্টে বিরাটকেই খেলালেন। বিরাট দুই ইনিংসে করলেন ৭৫ ও ৪৪। শেষ এবং চতুর্থ টেস্ট অ্যাডিলেডে যেখানে জীবনের প্রথম সেঞ্চুরি হাঁকালেন তিনি। একটুর জন্য সেই টেস্ট হেরে গেল ভারত। সেওয়াগ জানাচ্ছেন, সেখান থেকেই এক নতুন তারকার জন্ম হল। সেদিন নির্বাচকদের সামনে মাহি যদি দৃঢ় মনোভাব না দেখাতেন তো কে বলতে পারে, আজকের এই বিশ্বত্রাস ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলিকে আমরা হয়তো দেখতেই পেতাম না!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: