৩৫ টাকার চাকরি থেকে ২০১১ তে বিশ্বকাপজয়ী! ভারতীয় ক্রিকেটারের স্বপ্নের উথান..

ক্রিস গার্ডনারকে চেনেন? দাঁড়ান, একটা ক্লু দিচ্ছি— উইল স্মিথের ‘পারসুট অব হ্যাপিনেস’ সিনেমাটা দেখেছেন আশাকরি। যারা দেখেননি তাঁদের বলি, সিনেমাটা এক যুবকের জীবন সংগ্রাম নিয়ে বানানো। তাঁর নাম ক্রিস গার্ডনার। ওই সিনেমা দেখে চোখের জল ফেলেননি এমন মানুষ কমই আছে। ভাবছেন, এই প্রতিবেদনে হঠাৎ এই প্রসঙ্গের অবতারণা কেন। কারণ আছে।

বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের এক সদস্য এমন জীবন সংগ্রামের মধ্যে দিয়েই বড় হয়েছেন। সদ্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন তিনি। পেস বোলার মুনাফ প্যাটেলের কথা বলা হচ্ছে এখানে।

এক সময়ে ধোনির দলে ডেথ ওভারে অন্যতম ভরসা ছিলেন মুনাফ। ২০১১’র বিশ্বকাপে যথেষ্ট ভালো পারফর্ম্যান্স ছিল তাঁর। কিন্তু কাপ জেতার পর থেকেই তাঁর পারফর্ম্যান্স গ্রাফ নামতে থাকে। জাতীয় দলে নিয়মিত হয়ে ওঠেন ইশান্ত শর্মা, মহম্মদ শামি, উমেশ যাদবরা। তারপর থেকে আর নীল জার্সি গায়ে চাপানো হয়ে ওঠেনি তাঁর। আইপিএল খেলেছেন প্রথম দিকে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে। পরে দল পরিবর্তন করেন। সব মিলিয়ে ১৫ বছর প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলেছেন তিনি।

তবে শুরুটা এত সহজেই হয়নি মুনাফের। তিনি নিজেই জানিয়েছেন তাঁর প্রথম জীবনের কথা যখন তিনি মাত্র ৩৫ টাকা মজুরিতে এক টাইলস কারখানায় কাজ করতেন। নিজের ভাগ্যকে ধন্যবাদ দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘জীবন যা দিয়েছে তা যথেষ্ট। সবই সম্ভব হয়েছে ক্রিকেটের দৌলতেই।’ ভারতীয় ক্রিকেটের এই সেবককে আমাদের অনেক অভিনন্দন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: