ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের থেকেও হয়তো বাদ পড়তে পারেন এই তারকা!

এমএসকে প্রসাদের নেতৃত্বাধীন ভারতীয় ক্রিকেট সেলেকশন কমিটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের দল গঠনের জন্য শীঘ্রই বৈঠকে বসতে চলেছে। অক্টোবরের ৪ তারিখ, অর্থাৎ এশিয়া কাপ শেষ হওয়ার মাত্র ৬ দিনের মাথায় শুরু হয়ে যাবে এই সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচ। খুব একটা বড় সিরিজ নয় বলে এবং দেশের মাটিতে খেলা হবে বলে তরুণ খেলোয়াড়রা এবার দলে সুযোগ পাবে বলে মনে করছেন অনেকে। তবে দলের ভরসাযোগ্য এক ওপেনার হয়তো ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ থেকে বাদ হওয়ার পর ফের এই সিরিজেও হতাশ হতে পারেন দলে না থাকার কারণেই।

অনেকেই মনে করেন যতটা তাঁকে সীমিত ওভারে প্রয়োজন, ঠিক ততটাই তাঁর ভারতীয় টেস্ট দলেও দরকার। কিন্তু ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস-এর খবর অনুযায়ী, সেলেকটাররা এবারও তাকে টেস্ট দলে নিতে আগ্রহী নন। তিনিই চলতি এশিয়া কাপে ভারতের অধিনায়ক, রোহিত শর্মা। এমনকি শিখর ধাওয়ানকেও দল থেকে বাদ দেওয়া হতে পারে। ভারত যে অস্ট্রেলিয়া সফরকে মাথায় রেখে দল বানাচ্ছে, সেটাই স্পষ্ট হচ্ছে এই টিম সেলেকশন-এ। এটাও দেখার বিষয় যে ইশান্ত শর্মা এবং  রবিচন্দ্রন অশ্বিন চোট সাড়িয়ে সুস্থ হয়ে টেস্ট দলে ফিরতে পারেন কিনা। ইংল্যান্ড সফরের শেষ টেস্টে চোটের কারণেই খেলতে পারেননি ভারতীয় বোলিং সাইডের এই দুই তারকা।

রোহিত শর্মা তাঁর শেষ টেস্ট খেলেছিলেন এই বছরের শুরুতেই। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের টেস্ট সিরিজে সুযোগ পেলেও সেখানকার কঠিন কন্ডিশনে ধরাশায়ী হন তিনি। এখন পরিস্থিতি দেখে এমন মনে হচ্ছে যে রোহিতকে হয়তো তাঁর সীমিত ওভারের কেরিয়ার নিয়েই খুশি থাকতে হবে। তবে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে, তা সে ওয়ানডে হোক অথবা টি-টোয়েন্টি, রোহিতের ক্ষমতা সম্পর্কে সকলেই অবগত। এবছরের চলতি এশিয়া কাপে তিনি আবার প্রমান করলেন যে তাঁকে ভারতীয় দলে কতটা প্রয়োজন। টুর্নামেন্টের প্রথম গেমে রান না পেলেও তার পরের ম্যাচগুলোতে দু’টো অর্ধ-শতরান, একটা সেঞ্চুরি করে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ৩১ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে খেলায় তাঁকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল, তাই শুক্রবার ফাইনালে অনেকটা তাজা হয়েই নামবেন ভারতের এশিয়া কাপ দলের ক্যাপ্টেন।

ওয়ানডে-তে ওপেনিং জুটিতে রোহিত শর্মা আর শিখর ধাওয়ান যে বোলারদের জন্য কতটা ভয়ংকর, তা গোটা বিশ্ব জানে। বর্তমানে বিশ্বের সেরা ওপেনিং জুটিগুলোর মধ্যে রোহিত এবং শিখরের জুটি অন্যতম। তাঁরা যে কোনও দিন যে কোনও বোলিং সাইডের ঘাম ঝরাতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: