আইপিএল ২০১৮: মুম্বাই বনাম চেন্নাই ম্যাচে হলো ৮ টি রেকর্ড! দেখুন কি কি

একাদশতম আইপিএল শুরু হল একটি দারুণ উত্তেজনাময় ম্যাচ দিয়ে, যেখানে চেন্নাই সুপার কিংস মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের উপর কর্তৃত্ব করে এক উইকেটে জয় ছিনিয়ে নেয়। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স তাদের নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১৬৪ রান করেন, যার মধ্যে শেষ দশ ওভারে আসে ১০০ রান। অন্যদিকে অতিথি দলকে ১১৮/৮ উইকেটে আটকে রেখে এই ম্যাচে অভিষক করা ময়ঙ্ক মারকান্ডে এবং হার্দিক পান্ডিয়া নিজেদের মধ্যে ছটি উইকেট ভাগ করে নেয়, কিন্তু যেখান থেকে ৩০ বলে ৭টি ছক্কা মেরে ৬৮ রান করে সিএসকেকে টেনে তুলে জয়ের রাস্তায় নিয়ে যান ডোয়েন ব্র্যাভো।

আইপিএলের এই উত্তেজনাকর প্রথম ম্যাচে চলাকালীন যে সমস্ত স্ট্যাট এবং নাম্বার রেকর্ড হল

১– সিএসকের এই এক উইকেটে জয় আইপিএলের ইতিহাসে যে কোনও দলের এক উইকেটে জেতা এই নিয়ে দ্বিতীয়বার হল। এর আগে ২০১৫য় ইডেনে ১৮৪ রান তাড়া করতে নেমে কেকেআর এক উইকেটে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে জিত হাসিল করে।

২—আইপিএলের ১০৮টি ইনিংসে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার ওপেন করতে নামলেন আম্বাতি রায়ডু। এর আগে ২০১২ মরশুমে তিনি ওয়াঙ্খেড়েতেই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে পুনে ওয়ারিয়ার্সের বিরুদ্ধে ওপেন করতে নামে যেখানে তিনি স্কোর করেছিলেন ১(২)।

৩/২৪—প্রথমবার আইপিএলে হার্দিক পান্ডিয়া তিন উইকেট দখল করলেন। গত তিনটি মরশুমে আইপিএল ম্যাচে তিনি একবারই মাত্র একটির বেশি উইকেট পেয়েছিলেন। গত বছর লিগের খেলায় ইডেন গার্ডেনে তিনি কেকেআরের বিরুদ্ধে ২২ রানে ২ উইকেট নেন।

৩/২৫ – ময়ঙ্ক মারকান্ডের বোলিং ফিগার ৩/২৫ হল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে অভিষেক ম্যাচেই দ্বিতীয় সেরা বোলিং ফিগার। এর আগে ২০০৯ এ মুম্বাইয়ের হয়ে সিএসকের বিরুদ্ধেই অভিষেক ম্যাচ ১৫ রানে ৩ উইকেট নিয়েছিলেন লাসিথ মালিঙ্গা।

৪১*– ক্রুণাল পান্ডিয়ার অপরাজিত ৪১ রান আইপিএলে তার পরপর তিন ম্যাচে ৪০ প্লাস স্কোর। এর আগে ২০১৭ মরশুমের কোয়ালিফায়ার ২ ম্যাচে কেকেআরের বিরুদ্ধে অপরাজিত ৪৫ রান এবং ফাইনালে রাইজিং পুণে সুপারস্টারের বিরুদ্ধে ৪৭ রান করেন।

৪৯—আইপিএল অভিষেক ম্যাচেই বোলিংয়ে মার্ক উডের দেওয়া রান। প্রথম ওভারে তিনি মাত্র ২ রান দেন, কিন্তু তার পরের তিন ওভারে রান ওঠে ৪৭। ডোয়েন ব্র্যাভো তার করা প্রথম তিন বলে পরপর তিনটি চার মারেন কিন্তু কিন্তু পরের ২১টি টি ডেলিভারিতি তিনি মাত্র ১২ রানই নিতে পারেন।

৬৮—ডোয়েন ব্র্যাভোর ৬৮ রান তার আইপিএলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর এবং চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে তার সর্বোচ্চ রান। এর আগে ২০০৯ মরশুমে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে তিনি কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে ৭০ রানে অপরাজিত থাকেন।

৪৯৯—প্রথম দশটি আইপিএলে খেলা প্লেয়ারদের সংখ্যা। এই ম্যাচে এভিন লুইস, মার্ক উড এবং ময়ঙ্ক মারকান্ডে খেলায় সংখ্যাটি বেড়ে দাঁড়ালো ৫০২তে।

২০১২—পরপর ৬ বার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স তাদের প্রথম খেলায় জিত হাসিল করতে পারল না। এর আগে শেষবার তারা আইপিএলে তাদের প্রথম ম্যাচে জেতে ২০১২তে যা ছিল চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: