এই খেলোয়াড়কে চার নাম্বারে খেলানো উচিত – দাদা!

শচীন তেন্ডুলকরের অবসর, রোহিত শর্মার ওপেনিংয়ে উঠে আসা আর সুরেশ রায়না ও যুবরাজ সিংয়ের মতো ক্রিকেটারের টিম ইন্ডিয়ায় জায়গা হারানোর ফলে ভারতীয় দলের চার নম্বর পজিশনে একটা শূন্যতা সৃষ্টি করে ওডিআই ক্রিকেটে। গত জুলাই থেকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের টিম ম্যানেজমেন্ট এই সমস্যাটার সমাধান করার জন্য একাধিক পরীক্ষা-নীরিক্ষা চালিয়ে এসেছে। একটা নয়, দু’টি নয়, ছ’জন ব্যাটসম্যানকে চার নম্বর পজিশনের জন্য পরখ করে দেখেছে টিম ইন্ডিয়া।

গত বছর জুলাই-আগস্টের শ্রীলঙ্কা সফর থেকে চলতি বছরের জুলাই মাস ধরলে বছর খানেক সময় অতিক্রান্ত। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যে কোনও টিমের জন্য চার নম্বর পজিশনটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এই পজিশনে যিনি নামেন, তাঁর কাজ হলো মাঝের ওভারগুলিতে ম্যাচের গতি নিয়ন্ত্রণ করা এবং শেষ পর্যন্ত টিকে থেকে দলের জয় নিশ্চিত করতে বড় ভূমিকা নেওয়া। কেএল রাহুল, কেদার যাদব, মণীশ পান্ডে, অজিঙ্কা রাহানে, হার্দিক পান্ডিয়া ও দিনেশ কার্তিক – এই ছয় ব্যাটসম্যানকে পরখ করে দেখেছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও হেডকোচ রবি শাস্ত্রী। তবুও সমস্যাটা এখনও মেটেনি। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১২ জুলাই থেকে শুরু হতে চলা তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজে আবার এই পজিশন নিয়ে পরীক্ষা-নীরিক্ষা চালাতে আগ্রহী ভারত। বিশ্বকাপের আগে সমাধান বের করতেই হবে।

দাদা বলছেন, প্রবলেম সলভড…

টিম ইন্ডিয়ার ভিত যিনি রেখেছিলেন, সেই সৌরভ গাঙ্গুলি বর্তমানে অবসর নেওয়া ক্রিকেটার হলেও, দাদার মতামত সবসময়ই গুরুত্বসহকারে বিচার করতেই হয়। আর দাদা নিজেও টিম ইন্ডিয়া নিয়ে এখনও মাথা ঘামান। কারণ, বোর্ডের অ্যাডভাইজরি কমিটির সদস্য হিসেবে ভারতীয় ক্রিকেটের স্বার্থে মতামত দেওয়া তাঁর দায়িত্বের মধ্যেও পড়ে। ইংল্যান্ড বনাম ভারত সিরিজের আগে ভারতীয় দলের চার নম্বর ব্যাটিং পজিশনে ক্রমাগত চলতে থাকা এক্সপেরিমেন্ট প্রসঙ্গে দাদা বলছেন, আর কাউকে চান না তিনি। বিরাটই বেস্ট অপশন।

বেস্ট অপশন বিরাট…

”টি-২০ সিরিজ দু’টিকে যদি ধরি, তাহলে আমার তো মনে হয়. ঠিকঠাক ব্যাটিং লাইন-আপ তৈরি। রাহুল তিন নম্বরে, বিরাট চার নম্বরে। মনে হচ্ছে, ওরা সমস্যার সমাধান করেই ফেলেছে। আর আমার দৃঢ় বিশ্বাস, এটা লাইন-আপটাকেই ওডিআই ক্রিকেটে নামানো দরকার।”

”আমার মনে হয়, কোহলি এই লাইন-আপটাই প্রয়োগ করবে আসন্ন সিরিজে।”

আসন্ন ইংল্যান্ড-ভারত সিরিজ সম্পর্কে দাদার বক্তব্য –

”এই মুহূর্তে ভারত খুব ভালো দল সীমিত ওভারের ক্রিকেটে।’

”অতীতে অনেক ভালো মাপের ভারতীয় দল পরীক্ষার মুখে পড়েছিল। আর যারা বেশি ভালো টিম ছিল তারা ভালো পারফর্ম করেছিল। জিতেওছিল। আর আমার মনে হচ্ছে, ভারতের এই দলটাও সেরকম সফল হবে। ইংল্যান্ডে এবারের গ্রীষ্মে এই ভারতীয় দলটা ঠিক জিতবে – ওডিআই’য়ের পর টেস্টেও।”

ভারতের প্রাক্তন অধিনায়কের বক্তব্য, বর্তমান ভারতীয় দলটা ব্যাটিংয়ে সবচেয়ে বেশি প্রতিভাবান।

”এই মুহূর্তে সীমিত ওভারের ফরম্যাটে ক্রিকেট বিশ্বে ভারতের ব্যাটিং সবচেয়ে প্রতিভাবান। টপ অর্ডারে শিখর ধওয়ন আর রোহিত শর্মা রয়েছে। ওরা যদি টপ অর্ডারে রান করে যেতেই থাকে, তাহলে ওরা খুব তাড়াতাড়ি আমার আর শচীন তেন্ডুলকরের ওপেনিং পার্টনারশিপকেও চ্যালেঞ্জে ফেলে দেবে।”

”বেশি করে রোহিতের কথা বলব। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ও দুর্দান্ত ক্রিকেটার। ও যখন ব্যাট জোড়া তুলে রাখবে, অন্যতম সেরা বলে বিবেচিত হবে এই ফরম্যাটে!”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: