তৃতীয় টেস্টে দলে আসতে চলছেন এই তারকা!

ভারতের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী জানিয়েছেন অশ্বিন এখনও পুরোপুরি সুস্থ নন। ইংল্যান্ডে সাউদাম্পটন টেস্টে আনফিট অশ্বিনকে খেলিয়ে একবার চরম ভুগেছিল ভারত। তাই ফের আনফিট বোলার খেলাতে চায় না কোহলিরা। যা মনে হচ্ছে, সুস্থ হয়ে ওঠা জাদেজাই খেলবেন। আজও নেটে অনেকক্ষণ বল করলেন। ব্যাট হাতেও প্র্যাক্টিস করলেন বেশ কিছু সময়। বিষয়টায় সিলমোহর দিয়ে বিসিসিআই বিবৃতি দিয়ে বলেছে, ‘জাদেজার বাঁ কাঁধের চোট সেরে উঠছে এবং মেলবোর্নে তৃতীয় টেস্টে তাঁকে পাওয়া যাবে।’ এই খবরে স্বভাবতই খুশি ভারতীয় সমর্থকরা।

পার্থের মাটিতে ভারতকে হারিয়ে সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সেই জয়ে সবচেয়ে বড় ভূমিকা নিয়েছেন অজি অফস্পিনার নেথান লায়ন। দুই ইনিংসেই সিংহভাগ উইকেট তুলে জিতে নিয়েছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। অথচ ভারতের প্রথম এগারোয় কোনও নিয়মিত স্পিন বোলার খেলেনি ওই ম্যাচে। খেলানো হয়েছিল চারজন পেসারকেই। তাদের মধ্যে উমেশ যাদব একেবারেই নজর কাড়তে পারেননি। চতুর্থ দিনে একজন স্পিনারের অভাব ভীষণভাবে টের পেয়েছিলেন কোহলি। বাধ্য হয়ে হনুমা বিহারীকে দিয়ে বল করিয়ে যান তিনি। চোটের জন্য দ্বিতীয় টেস্টে বাদ পড়েছিলেন রবিচদ্রন অশ্বিন। রবীন্দ্র জাদেজাও একশো শতাংশ ফিট ছিলেন না। মেলবোর্নে অনুষ্ঠিতব্য বক্সিং ডে টেস্টে স্পিনার নিয়ে তাই এখনও ধোঁয়াশা।

প্রথম টেস্ট চলাকালীনই কুঁচকি এবং তলপেটে ব্যথা অনুভব করেছিলেন ভারতীয় অফস্পিনার। তাঁকে প্রথম এগারোয় না পাওয়া যে ভারতের জন্য বড় ক্ষতি তা অনেকেই মানছেন। রবি শাস্ত্রী জানিয়েছেন, ‘অশ্বিনের বিষয়টা আমরা আগামী ৪৮ ঘণ্টা নজরে রাখব।’ এই অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানরা যে স্পিনটা খেলতে বিশেষ দক্ষ নয় তা মোটামুটি সবাই বুঝে ফেলেছে। অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তৃতীয় টেস্ট জিততে হলে তিন পেসারের সঙ্গে তাই একজন দক্ষ স্পিনার রাখতেই হবে। এদিকে রোহিত শর্মা সুস্থ হয়ে উঠলেও হনুমা বিহারীকেই খেলানো হবে, এমনটাই মনে হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: