ভিডিও : মাঠের ভিতরই নিজেদের মধ্যে ঝামেলায় জড়ালেন ইশান্ত ও জাদেজা

হারের ভ্রূকুটি ছিলই। পারথে টেস্টের শেষ দিনে মিচেল স্টার্কের গতিতে বেসামাল ছিল ভারতীয় লোয়ার অর্ডার ব্যাটিং। সঙ্গে দোসর নাথান লিঁও আর প্যাট কামিন্স। ভারতকে ১৪৬ রানে হারিয়ে চার টেস্টের সিরিজে সমতা ফেরায় অজিরা।

২৮৭ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে চতুর্থ দিনের শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের স্কোর ছিল ৫ উইকেট হারিয়ে ১১২ রান।  জয়ের জন্য ভারতের প্রয়োজন ছিল ১৭৫ রান আর অস্ট্রেলিয়ার দরকার ছিল ৫টি উইকেট। ক্রিজে ২৪ রানে ব্যাটিং করছিলেন হনুমা বিহারি। আর ৯ রানে অপরাজিত ছিলেন ঋষভ পন্থ। পঞ্চম দিনে সকালে ভারতকে প্রথম ধাক্কাটা দেন মিচেল স্টার্ক। ২৮ রানে সাজঘরে ফেরেন হনুমা বিহারি। আর ঋষভ পন্থকে ৩০ রানে ফেরায় নাথান লিঁও। ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয় মাত্র ১৪০ রানে। ভারতের শেষ পাঁচ উইকেট মাত্র ১৫ ওভারের মধ্যে ফেলে দিয়ে ম্যাচ পকেটে পুরে নেয় অজিরা।

তবে,হেরে গেলেও পারথ টেস্টে বেশ নাটকীয়তার ছোঁয়া রাখল ভারতীয় দল। পারথ টেস্টে তৃতীয় ও চতুর্থ দিনে ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক টিম পেইনের উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় নিয়ে সরগরম ছিলই সেখানেই আবার বাড়তি মাত্রা যোগ করলো জাদেজা এবং ইশান্তের মাঠের ভিতর কথাকাটাকাটি। পারথ টেস্টের চতুর্থ দিনে খেলার মাঠের মধ্যেই বচসা বাঁধে জাদেজা আর ইশানের।

নাথান লায়নের হেলমেটে বল লাগলে, সাময়িক কিছু বিরতি চলছিল সেই সময়। আর ঠিক তখনই ইশান্ত আর জাদেজাকে দেখা যায় তাঁরা দুজন দুজনের দিকে আঙুল তুলে কিছু একটা বলছেন। দুজনের চেহারাতেই একটা রাগিরাগিভাব ফুঁটে উঠেছিল তাতে স্পষ্টতই বোঝা যায় যে কোনো কারণে বচসাই বেঁধে ছিল তাদের মধ্যে। প্রথমে সামান্য তর্কাতর্কি দিয়ে শুরু হলেও পরে অবশ্যই পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখে অন্যদের এসে থামাতে হয় তাদেরকে।

কমেন্ট্রি বক্সে সেই সময় ছিলেন রিকি পন্টিং। তাঁর নজর এই ঘটনার উপর পরতেই তিনিও সন্দেহের শুরে বলেন ” তাঁদের মধ্যে কি কোনো ঝামেলা লাগলো? কি নিয়ে তাঁরা কথা বলছে সেটা শোনা যাচ্ছেনা। কিন্তু তাঁরা যে তর্কাতর্কি করছে তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।

পরে অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের এই ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। সেখানে ঘটনার পুরো বিবিরণ পাওয়া যায়। তবে কি নিয়ে তাঁদের মধ্যে এরকম বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হলো তা স্পষ্ট নয় এখনও। তবে অনেকেরই ধারণা ফিল্ডিং বা বোলিং নিয়ে তাদের মতের কোনো অমিল সৃষ্ট হয়োছিল বলেই এই ঘটনা ঘটেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: