সমালোচিত হয়েও শুধরানোতেই নেই বিরাট, আবারও মুখে ‘গাঁ* ফটি হ্যায়’

সেঞ্চুরিয়ন টেস্টের দ্বিতীয় দিন ব্যাট করতে করতে স্টাম্প মাইকে ধরা পড়ে বিরাটের মুখের অশালীন কথা। দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারদের উদ্দেশ করে হার্দিককে হিন্দিতে বলে ওঠেন, ”শাম তক খেলেঙ্গে, ইনকি গাঁ* ফটজায়েগি।” তারপর সে নিয়ে নিদারুণ সমালোচনা হয়েছে। দেশের অধিনায়ক তিনি। ভাষায় সংযত হওয়া চাই। কারণ, খুদে থেকে শুরু করে যুব সমাজের আইকন কোহলি। তাঁর মুখে এরম ভাষা অনর্গল চলতে থাকলে, ওটাকেই ছোটোরা আওড়াবেন নিজেদের বন্ধুমহলে।

সুপারস্পোর্ট পার্কে তৃতীয় দিনও একইরকম ভাষা ব্যবহার করেছেন বিরাট। স্টাম্প মাইকে আবারও স্পষ্ট ধরা পড়েছে তা। দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করছে, ১৪.৪ ওভারে ২ উইকেট হারালেও ম্যাচে রয়েছেন দু’প্লেসিরা। ভারতীয় দলের রবিচন্দ্রন অশ্বিন বোলিংয়ে। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি তাঁর অন্যতম স্ট্রাইক বোলারকে উৎসাহ দিতে উদ্দেশে হিন্দিতে বলে ওঠেন, ”গাঁ* ফটি হ্যায় বেহে*চো*, ডালো এক জাগা পে, চলো অ্যাশ।” দক্ষিণ আফ্রিকানদের উদ্দেশ করে এভাবে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন বিরাট।

বিরাট কোহলিকে নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কের সংখ্যা ৩৩। দিল্লির ক্রিকেটারটি ভারতের বত্রিশতম অধিনায়ক। আগ্রাসনের জন্য বিরাট কোহলির প্রশংসা করলেও, ভারতীয় ক্রিকেটে তাঁর চেয়ে অনেক বড় বড় অধিনায়ক এসেছেন। কিন্তু, এভাবে কারওর মুখে দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে প্রতিনিধিত্ব করার সময় অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শোনা যায়নি। দেশের একজন স্বনামধন্য ব্যক্তির মুখে এমন ভাষা মোটেই শোভনীয় নয়। কারণ, বিরাট যেসব ভাষা প্রয়োগ করেছেন, তা অনেক নোংরা ইঙ্গিতবহ।

নিজে কানেই শুনে নিন…

উল্লেখ্য, সেঞ্চুরিয়নে টেস্টের প্রথম ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকা ৩৩৫ রান করে আউট হয়ে যাওয়ার পর ভারত ৩০৭ রান করে আউট হয়। বিরাট ১৫৩ রান করলেও ২৮ রানের লিড নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ইনিংসে আম্পায়ার তাঁর মত মেনে না নেওয়ায়, বল সজোরে মাটিতে ছুঁড়ে মারেন দিল্লির ক্রিকেটারটি। অতিরিক্ত আগ্রাসন দেখাতে গিয়ে নিজের আচরণে সংযত না থাকায় আইসিসি বিরাটকে ম্যাচ ফি’র ২৫ শতাংশ জরিমানা করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: