প্রথম টেস্ট জিতে এই খেলোয়াড়দের ওপর অখুশি বিরাট, যা বললেন…

কোহলির চোখেমুখে আতঙ্কের ছাপ ফুটে উঠতে শুরু করেছিল যখন জশ হ্যাজেলউডকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে লক্ষ্যের দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন নাথান লায়ন। বাকি ছিল আর মাত্র ৩২ রান। অজি সমর্থকদের আওয়াজ ধীরে ধীরে জোরালো হতে শুরু করেছিল ওই সময়। ঠিক তখনই অশ্বিনের বল হ্যাজেলউডের ব্যাটের কানা ছুঁয়ে দ্বিতীয় স্লিপে কে এল রাহুলের হাতে জমা পড়ে। আর তাতেই সৃষ্টি হয় নতুন রেকর্ড। এই প্রথম কোনও ভারতীয় দল অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে সিরিজের প্রথম টেস্ট জিতে নিল।

এই সময়টা যেন হোম টিমদের হারার সময় চলছে। ক’দিন আগেই শ্রীলঙ্কার মাটিতেই তাদের টেস্ট সিরিজ হারিয়ে দিয়ে এসেছে ইংল্যান্ড। দুবাইয়ের মাটিতে পাকিস্তানকে ২-১ হারিয়ে দিল নিউজিল্যান্ড। তাহলে কি এবার ভারত অস্ট্রেলিয়াকে সিরিজ হারিয়ে দেবে? অজি ব্যাটিংয়ের যা অবস্থা তাতে সেটা হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। দ্বিতীয় ইনিংসে অজিদের দশটা উইকেট ভাগাভাগি করে নিলেন ভারতের চার বোলার। তবে লায়নের ৬ উইকেটের কথা মাথায় রাখলে অশ্বিনের কাছে আরও বেশি আশা করাই যায়।

ম্যাচ শেষে বিরাট বললেন, ‘শেষের দিকে শান্ত থাকা খুবই দরকারি ছিল, কারণ প্যাট কামিন্স আউট হয়ে যাওয়ার পর ম্যাচ ওদের বিপক্ষে চলে গিয়েছিল। আমি বলছি না যে শেষের দিকে আমি বরফের মতো ঠান্ডা ছিলাম তবে সেটা বাইরে প্রকাশ না করার চেষ্টাই করছিলাম। জানতাম যে একটা ভালো বল বা ব্যাটসম্যানদের একটা ভুল আমাদের ম্যাচ জিতিয়ে দেবে। চার জন বোলার যেভাবে ২০টা উইকেট তুলে নিল তার জন্য আমি ভীষণ গর্বিত। ব্যাটসম্যানদের এই সিরিজে আর একটু এগিয়ে আসতে হবে। পূজারা এবং রাহানে এই ম্যাচে দুর্দান্ত খেলেছে। আমার মনে হয় এই ম্যাচে আমরাই বেশি ভালো দল ছিলাম এবং যোগ্য হিসেবেই ম্যাচ জিতেছি। অস্ত্রেলিয়াকে ছাপিয়ে যাওয়ার জন্য আমাদের অনেক বেশি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ থাকতে হয়েছে। মিডল অর্ডারেবং লোয়ার অর্ডার আর একটু ভালো করতে পারে। পার্থ টেস্টে নামার আগে এই ব্যাপারটা মাথায় রাখতে হবে। তবে প্রথম টেস্ট জিতেছি এটাই সবচেয়ে বড় কথা।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: