বিরাটকে নিয়ে ফের মন্তব্য টিম পেইনের, যা বললেন শুনলে গর্বিত হবেন!

রীতিমতো জমে গেছে অস্ট্রেলিয়া বনাম ভারতের টেস্ট সিরিজ। ১-১ ড্র অবস্থায় বক্সিং ডে অর্থাৎ ২৬ ডিসেম্বর তৃতীয় টেস্টে মুখোমুখি হচ্ছে যুযুধান দুই প্রতিপক্ষ। কে না জানে এই সিরিজ মানেই উত্তেজনা, বাগযুদ্ধ, স্নায়ুর লড়াই, স্লেজিং, বিতর্ক, কেলেঙ্কারী কত কী। একেকবার দুই দলের একজন করে খেলোয়াড় ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েন এই সিরিজে। কখনও হরভজন সিং আর অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস তো কখনও মিচেল জনসন আর বিরাট কোহলি।

কিন্তু এবার সবকিছুর কেন্দ্রে দুই দলের দুই অধিনায়ক। বিরাট কোহলি এবং টিম পেইনের মধ্যে চলছে সেয়ানে সেয়ানে কোলাকুলি। কেউ কাউকে কোনওরকম সৌজন্য দেখাচ্ছেন না।

প্রথম টেস্ট ঠান্ডা মেজাজে কাটলেও দ্বিতীয় টেস্ট থেকেই শুরু হয়ে যায় উত্তপ্ত কথা চালাচালি। প্রথম ইনিংসে কোহলির আউট হওয়া দিয়েই সবকিছুর সূত্রপাত। আম্পায়ার আউট দিলেও কোহলি মনে করেন ক্যাচ আদৌ ঠিকভাবে ধরতে পারেননি পিটার হ্যান্ডসকম্ব। ভারতীয় অধিনায়ক এরপর থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে চলে যান। টিম পেইনকে বাউন্সারে জর্জরিত হতে দেখে কোহলি বলেন, ‘তুমি এখন আউট হয়ে গেলে কিন্তু সিরিজ ২-০ হয়ে যাবে।’ পেইন তৎক্ষণাৎ পালটা জবাবে বলেন, ‘তার জন্য তোমাদের ভালো ব্যাট করতে হবে।’ এরপর অজিদের দ্বিতীয় ইনিংসে পেইনের দৌড়নোর রাস্তায় প্রায় ইচ্ছে করেই দাঁড়িয়ে যান কোহলি। ফের শুরু হয়ে যায় তর্কাতর্কি। আম্পায়ার ভর্তসনার সুরে দুজনকেই নিরস্ত করেন।

এরপর মুরলী বিজয় ব্যাট করার সময়ে তাঁকে তাঁর অধিনায়ক সম্পর্কে উল্টোপাল্টা বলেন পেইন। এই মুহূর্তে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হতে পারত। কিন্তু দেখা যাচ্ছে খানিকটা পিছু হটেছেন অজি অধিনায়ক। ওদেশের এক কাগজে তিনি বিরাটের প্রশংসা করে বেশ কিছু কথা লিখেছেন। ‘দ্বিতীয় টেস্টে আমার বিরাটের লড়াই নিয়ে অনেক কথা বানানো হয়েছে। অথচ শেষ ক’বছরে যখন আমি দেশের হয়ে খেলছিলাম না তখন ওঁর খেলা দেখতে ভালো লাগত। বিরাট যেভাবে খেলে সেটা আমার ভালো লাগে, ওকে ব্যক্তিগতভাবে না চিনলেও ওঁর খেলা দারুণ লাগে। শুধু স্কিল নয়, ওঁর প্যাশন এবং অ্যাগ্রেশনটাও দেখার মতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: