মুম্বাইতে যোগ দিয়ে, নিন্দুকদের উদ্দেশ্যে যা বললেন যুবরাজ..

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ, আইপিএলের ২০১৯ নিলামের প্রথমপর্ব পর্যন্ত তিনি ছিলেন অবিক্রিতই। কোনও দলই তাঁকে নিতে বিশেষ আগ্রহ দেখাননি। আইপিএল নিলামের ইতিহাসে এ পর্যন্ত সবচেয়ে দামি ক্রিকেটারের জন্য তা নিঃসন্দেহে হতাশার। ভারতীয় দলের অলরাউন্ডার যুবরাজ সিংকে নিলামের শেষ মুহূর্তে সেই হতাশা কাটিয়ে আরও একবার নিজেকে প্রমাণের একটা সুযোগ করে দিল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। বেস প্রাই ১ কোটিতে তাঁকে কিনে নেয় মুম্বই ইন্ডিয়ান্স।

গত আইপিএলে যুবরাজ ছিলেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবে। গত নভেম্বরে ২ কোটির যুবরাজকে ছেড়ে দেয় পাঞ্জাব। এ বার নিলামের প্রথম রাউন্ড অবধি কোনও দল পাননি আইপিএলের ইতিহাসে একটা সময় সর্বোচ্চ দর ১৬ কোটিতে বিক্রি হওয়া এই অলরাউন্ডার। ২০১৫-য় তাঁকে ১৬ কোটি দিয়ে কিনেছিল দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। তার আগের আইপিএলে রয়াল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু তাঁকে নিয়েছিল ১৪ কোটি দিয়ে। ২০১৬-য় সানরাইজ হায়দরাবাদে যুবির দর নেমে আসে ৭ কোটিতে। এবার নেমে আসে এক কোটিতে।

কিন্তু এরকমটায় একদমই হতাশ নয় উল্টে উছ্বাসিতই দেখাল যুবিকে। ট্যুইটারে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলের পক্ষ থেকে এই ভিডিও ট্যুইটে তিনি বললেন ” পাল্টান আব আয়েগা মাজা”। অর্থাৎ এবছর যে কোমড় বেঁধে লড়াই করার জন্য তিনি প্রস্তুত সেই বার্তাই পৌঁছে দিতে চাইলেন তাঁর সমর্থকদের কাছে। অনেকে আবার প্রশ্ন তুলছেন যুবির অবসর নিয়েও। আইপিএলে দর কমে আসায় এবং ধারাবাহিকভাবে অফ ফর্মে প্রমাণিত হওয়ার জন্য অনেকে বলছেন এবার অবসর নিয়ে নেওয়া উচিত যুবির।

কিন্তু সেসব কথা কানেই তুলছেন না বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার। উল্টে চনমনে মেজাজে তাঁকে যে এবছর আইপিএলের ময়দানে দেখা যাবে সেটাই বোঝাতে চাইছেন।

“পল্টন, আৱ আয়েগা মজা” নিন্দুকদের করা জবাব দিলেন যুবি!

 

অন্যদিকে তাকে পেয়ে খুশি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলের মালিক আকাশ আম্বানিও। এক সাক্ষাৎকারে মুম্বাইয়ের মালিক আকাশ বলেছেন, “এবছর নিলামে সবচেয়ে বড়ো বাজিমাত হলো যুবরাজের মতো প্লেয়ারকে এক কোটি টাকায় পেয়ে যাওয়া। তিনি ভাবতে পারেননি এত কম দামে যুবরাজকে পেতে পারেন। তবে পেয়েও আনন্দিত।”

যুবরাজও এই বছরটাকে ঘুরে দাঁড়ানোর মোক্ষম সময় হিসেবে দেখছেন। আপাতত পাল্টান ফ্যামিলিতে আসতে পেরে খুশি তিনিও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: