তনুশ্রী দত্ত কাণ্ডে নানা পাটেকরের পাশে দাঁড়িয়েছেন যে বলিউড সেলেবরা

২০০৮ সালে ‘‌হর্ন ওকে প্লিজ’‌ ছবির শুটিংয়ের সময় নানা পাটেকর যৌন হেনস্থা করেন তনুশ্রীকে। ১০ বছর পর এই ঘটনা প্রকাশ্যে এনেছেন প্রাক্তন ভারত সুন্দরী। এই বিষয়টি সামনে আসার পর থেকেই তনুশ্রীকে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বহু মানুষই প্রশ্ন করছেন যে এতদিন পর তিনি কেন মুখ খুললেন? মার ও অভিনয়ের জন্য বলিউডে বিখ্যাত ছিলেন তনুশ্রী দত্ত। বলিউডে বোল্ড দৃশ্য কিংবা আইটেম গানের জন্য জনপ্রিয় মুখ ছিলেন তনুশ্রী। কিন্তু ২০০৮ সালে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে দুর্বব্যহার ও প্রযোজকদের সঙ্গে অশান্তিতে জড়ানোর জন্য বলিউডে তনুশ্রীর কেরিয়ার প্রায় শেষ হয়ে যায়।

তারপর থেকে বলিউডে কোনও সিনেমাতে দেখা যায়নি তাঁকে। আপাতত নিউইয়র্কে বসবাস করেন তনুশ্রী। কিন্তু গত দুদিন যাবত্‍ বলিউডে কিছু প্রযোজকের নামে বিস্ফোরক অভিযোগ করেন তিনি। এবার বলিউডের বিখ্যাত অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন অভিনেত্রী তনুশ্রী। দীর্ঘ দশ বছর পর তিনি বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, তনুশ্রী জানিয়েছেন যে একটি সিনেমায় নানা পাটেকার তাঁকে জোর করে নাচতে বাধ্য করেছিলেন এবং কিছু অশালীন দৃশ্যে অভিনয় করতে বলেছিলেন। যেটা চিত্রনাট্যে ছিল না। .

তনুশ্রী দত্তের আনা হেনস্থার অভিযোগে সায় নেই যে চার বলিউড সেলেবের

৪) রাখি সাওয়ান্ত

আর সব বিতর্কিত বিষয়ের মত এই কাণ্ডেও মুখ খোলেন বলিউডের ড্রামা কুইন রাখি সাওয়ান্ত। তনুশ্রীকে আক্রমণ করে সাংবাদিক বৈঠকে রাখি বলেন, ‘গত দশ বছর কি ও কোমায় ছিল? এখন এসেছে নানা পাটেকরের মতো একজন প্রবীণ অভিনেতার বিরুদ্ধে কুৎসা রটাতে। এসব কিছুই না। যেহেতু তনুশ্রী ভালো ইংরাজি বলতে পারে, তাই সংবাদমাধ্যম ওকে অযথা গুরুত্ব দিচ্ছে। সাহস থাকে তো ও আমার সামনে আসুক।’অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত অভিযোগ করেন, ২০০৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘হর্ন ওকে প্লিজেস’ ছবির শুটিংয়ের সময় সেটের মধ্যেই অভিনেতা নানা পাটেকর তাকে হেনস্থা করেন। এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে রেগে গিয়ে পরে তনুশ্রীর বিরুদ্ধে মামলা করার হুমকি দেন নানা।

এদিকে অভিনেতা নানার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিতর্ক শেষ না হতেই নতুন করে এক পরিচালকের বিরুদ্ধেও যৌন হেনস্তার অভিযোগ করেছেন তনুশ্রী। জানালেন, ২০০৫ সালে ‘চকলেট’ ছবির শুটিংয়ের সময় পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী তাকে জামা খুলে সহ-অভিনেতা সুনীল শেঠি ও ইরফান খানের সামনে নাচতে বলেছিলেন।তনুশ্রী বলেন, সে সময় পরিচালকের ওই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন অভিনেতা ইরফান খান ও সুনীল শেঠি। ইরফান খান রেগে গিয়ে চিৎকার করে বলেন, ‘কেন তনুশ্রীকে আমাদের সামনে এভাবে নাচতে হবে? আমরা সবাই জানি, শুটিংয়ে কাকে কী করতে হবে। তাই এ নিয়ে অতিরিক্ত কথা বলার প্রয়োজন নেই।’ তনুশ্রী জানান, ওই সময় পরিচালকের ওপর ক্ষেপে যান সুনীল শেঠিও।

৩) শক্তি কাপুর


নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে তোলা তনুশ্রী দত্তের অভিযোগে শক্তি কাপুর বলেন, ‘‌আমি গতকালই আমেরিকা থেকে ফিরেছি। গণপতি বাপ্পার পুজোর জন্য আমি ওখানে ছিলাম। আমি কিছুই জানি না এই ঘটনা সম্পর্কে।’‌ এরপর সংবাদ সংস্থার পক্ষ থেকে সব জানার পর তিনি বলেন, ‘‌এটা তো ১০ বছর আগেকার ঘটনা, আমি তো তখন শিশু ছিলাম।’‌ শক্তি কাপুরের কাছ থেকে এ ধরনের মন্তব্য শোনার আশা অনেকেই রাখেননি। যেখানে এই বিষয় নিয়ে অনেকেই সমর্থন করছেন তনুশ্রী দত্তকে। সোনম কাপুর, টুইঙ্কল খান্না, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, ফারহান আখতার, সিমি গারেওয়াল, অনুরাগ কাশ্যপ, পুজা ভাট, রবিনা ট্যাণ্ডন এবং কোয়েনা মিত্রের মত জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বরা তনুশ্রীকে তাঁর সাহসী পদক্ষেপের জন্য বাহবা জানিয়েছেন। অন্যদিকে, অমিতাভ বচ্চন, সলমন খান এবং কল্কি কোচলিন তাঁর পাশে দাঁড়াতে অস্বীকার করেছেন। নানা পাটেকরের পক্ষ থেকে ক্ষমার দাবি চেয়ে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে তনুশ্রীর কাছে। ‌

২) ডেভিড ধাওয়ান


পরিচালক ডেভিড ধাওয়ান নানা পাটকরের পাশেই দাঁড়িয়েছেন।

১) সুনীল শেঠি


সুনীল শেঠি পরোক্ষভাবে এই কাণ্ডে নানা-র পাশেই দাঁড়িয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: