শাহুরখ-আমির-সলমনরা নন, বছর তিনেক এই পাঁচ নায়কই বলিউডে রাজ করবেন

সময় পাল্টালে মানুষের রুচিও বদলায় আর ঠিক এরকমই বদলের হাওয়ার পাল এসে লেগেছে বলিউডেও। প্রেম -বিবাহ -বিচ্ছেদ জাতীয় কমার্শিয়াল সিনেমা থেকে অদূরে থেকেও দর্শকের বর্তমান পছন্দ কিন্তু বায়োপিক এবং সাহিত্যনির্ভর সিনেমাও। বাড়ির ড্রয়িং রুম হোক বা বক্স অফিস সবজায়গার পর্দা ঘিড়েই এই রদবদলের আঁচ। শাহরুখ-সালমান- আমিরের বোরডম থেকে বেরিয়ে দর্শকের আশা ভরসা এখন কিন্তু খানিক হলেও নতুন প্রজন্মের অভিনেতাদের উপরও। তাই আসুন জেনে নিই কারা এই নতুন প্রজন্মের উঠতি অভিনেতা যাদের দর্শকরা আগামী প্রজন্মের সুপারস্টার হিসেবে ভোট দিয়ে আসছেন! এই প্রতিবেদনে এমনই পাঁচ অভিনেতার কথা উল্লেখ করা হলো-

৫) সুশান্ত সিং রাজপুত:

ছোটপর্দার হাত ধরেই বলিউডে প্রবেশ সুশান্ত সি রাজপুতের। প্রথম সিনেমা “কোই পো চে” বাণিজ্যিকভাবে সফল হলেও ভারতীয় ক্রিকেটার মহেন্দ্র সিং ধনীর জীবন নিয়ে তৈরী সিনেমা “এম.এস. ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি ” সুশান্তের ক্যারিয়ারের টার্নিং পয়েন্ট। এছাড়ার অভিনয় করেছেন “শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স” সিনেমায়। আমির খান অভিনিত পিকে সিনেমাতেও ছোট চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে। সম্প্রতি, দর্শকদেরকে নতুনভাবে রোমাঞ্চিত করার লক্ষ্যে সুশান্ত সিং ১২টি বায়োপিক সিরিজ নিয়ে আসছেন। এই সিরিজ গুলোতে ভারতের জনপ্রিয় সব ব্যক্তিদের জীবনী তুলে ধরা হবে। এপিজে আব্দুল কালাম,রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর,চানৈক্য থেকে শুরু করে ভারতের ইতিহাসে আলোচিত ব্যক্তিদের নিয়ে এই বায়োপিক সিরিজ সাজানো হয়েছে।

৪) নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি:

খল চরিত্রে এবং পার্শ্বচরিত্রে অভিনয়ে এই বলিউড অভিনেতার একটা আলাদাই মুন্সিয়ানা রয়েছে। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই একের পর এক সিনেমায় অনবদ্য অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হয়ে এসছে এই প্রতিভা। কাহানি, তালাশ, রেইস, নিউইয়র্ক ইত্যাদি একাধিক সিনেমায় তার অভিনয় ছিলো চোখে পরার মতো। এছাড়াও তিনি অসাধারণ অভিনয় শৈলীর সুবাদে তিনবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং দ্য লাঞ্চবক্স চলচ্চিত্রের জন্য একবার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে এই পুরস্কারও অর্জন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: