“আসছে আবার শবরের” পর অরিন্দম শীলের নতুন ছবি!

ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনায় পরিচালক অরিন্দম শীল তার নতুন ছবিতে হাত দিচ্ছেন৷ গত এক বছর ধরেই পরিচালকের ইচ্ছে , যৌথ প্রযোজনার একটি ছবি তৈরি করার, যার মাধ্যমে বাংলাদেশের দর্শকের কাছেও নিজের কাজ নিয়ে তিনি খুব সহজেই পৌঁছে যেতে পারবেন।  প্রথমে অরিন্দম ঠিক করেছিলেন সমরেশ মজুমদারের ‘অনুপ্রবেশ’ উপন্যাস অবলম্বনে ছবি করবেন। সে ছবির কাজ অবশ্য এগোয়নি৷ তখনই তিনি সুচিত্রা ভট্টাচার্যের লেখা ‘ঢেউ আসে ঢেউ যায় ’-এর গল্প নিয়ে ছবি তৈরী করবেন ঠিক করেন৷ ছবির নাম ‘বালিঘর ’৷

ছবিতে আবির, অনির্বাণ, রাহুল, পার্নোকে ছাড়াও ও পারের নামজাদাদেরও দেখা যাবে। প্রথমবার অরিন্দমের ছবিতে নায়িকা পার্নো মিত্রকেও দেখা যাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে৷ বাংলাদেশ থেকে ছবিতে থাকছেন আরেফিন শুভ , নুসরত ইমরোজ তিশা আর কোয়াজি নওশাবা আহমেদ৷ তিশাকে এর আগে ‘ডুব ’ ছবিতে ইরফান খানের সঙ্গে দেখা গিয়েছে । ছবিতে ডি ও পি-র কাজ করবেন সৌমিক হালদার৷ ছবিতে বিক্রম ঘোষ আর চিরকুট যৌথভাবে সঙ্গীত পরিচালনা করবেন৷ বাংলাদেশের পান্থ কানাই -এর গানও ব্যবহার করা হবে। কক্সবাজারে জাহিদ নামে একটি ছেলে গান গেয়ে ভিক্ষে করত৷ এখন হোটেলে গান করে৷ তাকেও ছবিতে রাখা হচ্ছে। ছবির ৯০ শতাংশের শ্যুটিং হবে বাংলাদেশে৷ কলকাতা , শান্তিনিকেতন , ঢাকা , চিটাগং আর কক্সবাজারে শ্যুটিংয়ের প্রস্ত্ততি শুরু হয়ে গিয়েছে৷

ছবির গল্পের ব্যাপারে পরিচালক বলেন,  ছবিটি প্রধানত বন্ধুদের রিইউনিয়নের গল্প৷ অনেক দিন পরে বন্ধুদের একে -অপরের সঙ্গে দেখা হয়৷ সেই দেখা হওয়ার পর তাদের জীবন কোন খাতে প্রবাহিত হচ্ছে সে গল্পই থাকবে ছবিতে৷ এবছরের ২১শে মার্চ  ছবির শ্যুটিং শুরু হবে।  সবকিছু ঠিকঠাক এগোলে ছবি মুক্তি পেতে পারে আগামী অগস্টেই৷

অরিন্দম শীলের শবর সিরিজের তৃতীয় ছবিটি মুক্তি পাওয়ার ঠিক পরদনিই সঙ্গীত পরিচালক বিক্রম ঘোষ কে সঙ্গে নিয়ে পরিচালক “বালিঘর” -এর ব্যাপারে ঘোষণার জন্য বাংলাদেশের ঢাকায় পৌঁছে গিয়েছিলেন। কিন্ত্ত টালিগঞ্জের ব্যস্ত এই পরিচালক একসঙ্গে অনেক কাজের দায়িত্ব নিয়ে ফেলেছেন , একের পর এক নতুন ছবিতে হাত দিচ্ছেন। এবছর মোট তিনটে ছবি করছেন৷ মার্চ মাসে ‘বালিঘর ’৷ তারপর ব্যোমকেশ সেরে বছরের শেষের দিকে প্রসেনজিতের সঙ্গে ছবি করবেন স্থির করেছেন।  ছবির সঙ্গে সঙ্গে তিনি টেলিভিশনে ‘ভূমিকন্যা ’ প্রযোজনা করছেন। তার একটি অংশের জন্য কম্বোডিয়াতে শ্যুটিংও করতে যাওয়ার কথা। বাংলাদেশের ‘বেঙ্গল ক্রিয়েশনস ’ আর ভারতের ‘নাথিং বিয়ন্ড সিনেমা ’ যা অরিন্দমেরই প্রযোজনা সংস্থা , দুই পক্ষের উদ্যোগে তৈরি হবে এই ছবি৷ বাংলাদেশের তরফে ছবির নিবেদক আবুল খায়ের লিটু আর ভারতের তরফে ছবির নিবেদক থাকছেন অরিন্দম শীল৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: