বাতিল ৪০ লক্ষ গাড়ির রেজিস্ট্রেশন। আপনার গাড়ি এর মধ্যে নেই তো?

বাতিল করা হল ৪০ লক্ষ গাড়ীর রেজিস্ট্রেশন নং। স্থান দিল্লী। কারণ দূষণ। হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। প্রথমে ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইবুনাল আর তার পর ২০১৫ সালের সুপ্রিম কোর্টের অর্ডারকে মান্যতা দিয়েই এবার দিল্লী সরকার ৪০ লক্ষ গাড়ীর রেজিস্ট্রেশন বাতিল করল। তবে এর আওতায় মূলত ১৫ বছরের বেশি পুরনো পেট্রোলচালিত গাড়ি এবং ১০ বছরের বেশি পুরনো ডিজেলচালিত গাড়িগুলিকেই আনা হয়েছে।

তবে এটা যে রাতারাতি হল তেমনটাও নয়। দিল্লী হরিয়ানা ও পাশ্বর্বতী অঞ্চলের প্রবল বায়ু দূষণে রাশ টানতে এমন উদ্যোগ নেওয়ার বন্দোবস্ত হচ্ছিল বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই। শীতের শুরুতেই দিল্লী ও পাশ্ববর্তী এলাকায় বায়ু দূষণের মাত্রা গত পাঁচ বছরে এতটাই বেড়েছে যে পরিবেশবিদরা রীতিমত শঙ্কিত। গাড়ি বাতিলের পাশাপাশি দূষণ নিয়ন্ত্রনের অভিযোগ জানাতে বা সচেতনতা বাড়াতে সোশাল মিডিয়াতেও প্রচার চালাচ্ছে গ্রিন ট্রাইবুনাল এবং দূষণ সম্পর্কিত অভিযোগ জানাতে সেন্ট্রাল পলিউশন কন্ট্রোল বোর্ড ইতিমধ্যেই অনলাইন আ্যপ ও চালু করেছে।

২০১৫ এর এপ্রিলেই কেজরিওয়াল সরকারের জোড়-বিজোড় ফর্মুলার সমালোচনাও করে দূষণ রোধে এই ফর্মুলা কোনও কাজ দেবে না বলে গ্রিন ট্রাইব্যুনাল দাবী করে এবং গত এপ্রিলেই দিল্লিতে ১০ বছর পুরানো ডিজেল চালিত গাড়ির উপর নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন জানিয়েছিল ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনাল। সেই দাবীর শুনানিতেই সুপ্রিম কোর্টের জাস্টিট এইচ এল ডাত্তু ও জাস্টিস অরুণ মিশ্র বেঞ্চ রায় দেয় দিল্লী ও ন্যাশানাল ক্যাপিটাল রিজিন এ ১৫ বছরের পুরানো পেট্রোল ও ১০ বছরের পুরানো ডিজেল যেকোন গাড়ীর রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার। এবং এসব গাড়ি যদি আইন না মেনে না ধরা পড়ে তাহলে স্থানীয় অথরিটিকে গাড়ী সাথে সাথে বাজেয়াপ্ত করার অধিকারও দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

তবে এতে দিল্লী অঞ্চলের কতটা দূষণ কমবে তা সময় বলবে কারণ কেবল গাড়ীর জন্য যে দূষণ হয় তার চেয়ে অনেক গুণ বেশি দূষণ দশেরা থেকেই শুরু হয়। তাছাড়া শীতের শুরুতেই দিল্লী ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ফসল কেটে মাঠে গাছের গোড়া ও খড় পোড়ানোয় দূষণের পরিমাণ অত্যাধিক হয়ে ওঠে। আর সুপ্রিম কোর্টের রায় মান্যতা দিয়ে এ রাজ্যেও হাই কোর্ট ১৫ বছরের গাড়ি তুলে নেওয়ার সরকারের কার্যক্রম জানতে চেয়ে হলফনামা পেশ করতে বলে, যদিও আজও সে হলফনামা পেশ করতে পারেনি রাজ্য সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: