তৃণমূল নেতাদের নিয়ে দিলীপ ঘোষের রক্তগরম করা এই হুমকিতে চটেছে সোশ্যাল মিডিয়া

রাজ্যে লোকসভা নির্বাচনের প্রচার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে গেরুয়া শিবির। জায়গায় জায়গায় জনসভায় শাসক দল তৃণমূলকে আক্রমণ করছে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। গতকাল একটি সভা থেকে বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল কে উদ্দেশ্য করে হুঁশিয়ারি দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তিনি জানান, কুকুর তেমন রাস্তায় পেটানো হয় তেমনই কাউন্সিলরদের রাস্তায় ফেলে পাবলিক পেটাচ্ছে। নেতাদের গণপিটুনি দেওয়া শুরু হয়েছে। এছাড়াও মানুষের সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে যাওয়ায় পাবলিক ক্ষেপে উঠেছে। একটা নেতাও বাঁচবে না বলে কটাক্ষ করেন দিলীপ ঘোষ। এমনকি পাবলিকের মার দুনিয়ার মার বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

এর পাশাপাশি তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে বলেন ঊনিশ সালের পর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর অক্সিজেন সিলিন্ডার কেড়ে নেওয়া হবে। মূলত দেশের কুড়িটি রাজ্যে ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি সরকার এবং বা অন্য তিনটি রাজ্যে অন্য দলের সাথে সমঝোতা করে চলছে। সুতরাং মূল হিসাবের দিকে তাকালে দেখা যায় ৮০% রাজ্যে ক্ষমতায় রয়েছে গেরুয়া শিবির।

এবার তাই বাকি সম্পূর্ণটা নিজেদের দখলে নিতে চাইছে বিজেপি। পঞ্চায়েত ভোটে ৩৪ শতাংশ আসনে শাসক দলের তরফে তাদের মনোনয়ন জমা দিতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেন দিলীপ ঘোষ। এবার পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর বোর্ড গঠনেও তাদের বাধা দিচ্ছে শাসকদল বলে অভিযোগ করেন তিনি। তাই তৃণমূলকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, রাজ্যে এবার তৃণমূল এর পিছনোর দিন শুরু হয়েছে এবং বিজেপির এগোনোর দিন শুরু হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার সাধারণ মানুষকে যে ধোঁকা দিচ্ছে তা বোঝাই যাচ্ছে। যে কারণে তৃণমূল কাউন্সিলরদের পিঁটিয়ে শরীরের সব জায়গায় ব্যান্ডেজ বাঁধা থাকবে বলে হুঁশিয়ারি দেন দিলীপ ঘোষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: