আফ্রিকার এক গ্রামে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী কী দান করলেন শুনলে চমকে যাবেন

গোরক্ষকদের তাণ্ডব নিয়ে দেশে যখন তুমুল বিতর্ক, তারই মধ্যে আফ্রিকার একটি দেশে গিয়ে গোদান করলেন মোদী। আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ইতিহাসে সম্ভবত এই প্রথম বিষয়টির আমদানি করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আফ্রিকার রুয়ান্ডার একটি দরিদ্র গ্রামে 200টি গরু উপহার দিলেন তিনি। রুয়ান্ডা সরকারের ‘গিরিনকা’ কর্মসূচির অধীনে এই গোদান করা হল। ‘গিরিনকা’-র অর্থ ‘দরিদ্র পরিবারপিছু একটি গরু’। সে দেশের শতাব্দী প্রাচীন ঐতিহ্য অনুসারে সম্মান ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশের জন্য গরু উপহার দেওয়া হয়ে থাকে।

‘গিরিনকা’ কর্মসূচির লক্ষ্য অবশ্য দীর্ঘমেয়াদি পুষ্টি। অপুষ্ট শিশুদের গরুর দুধ জোগানোই এর প্রধান উদ্দেশ্য। সরকারি ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ বাড়ানোর লক্ষ্যে এই সফরে একটা সামাজিক মোড়ক দেওয়ার চেষ্টা করলেন মোদী। একই সঙ্গে গো-রাজনীতিতে নিজেদের অনড় অবস্থানের বার্তাও পাঠালেন দেশে। নয়াদিল্লিতে বিদেশ মন্ত্রক জানাচ্ছে, মোদী যেখানে ২০০টি গরু দিয়েছেন সেখানকার কোনও গ্রামবাসীর কাছে কোনও গরু ছিল না।

রুয়ান্ডার প্রেসিডেন্ট পল কাগামের উপস্থিতিতে এই গোদান পর্বটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই প্রথম সে দেশে গেলেন ভারতের কোনও প্রধানমন্ত্রী। উদ্দেশ্য অবশ্যই বাণিজ্যিক-সামরিক ও অন্যান্য ক্ষেত্রে সহযোগিতার সম্পর্ক গড়ে তোলা। রাশিয়া, চিনের মতো বহু দেশের সঙ্গেই বাণিজ্যিক-সামরিক সম্পর্ক রয়েছে আফ্রিকার এই দেশটির। সন্দেহ নেই, প্রতিযোগিতার বাজারে এই দেশগুলির সঙ্গে টক্করে নামতেই একশো জনের একটি বাণিজ্য প্রতিনিধিদল নিয়ে গিয়েছেন মোদী। সই হয়েছে প্রতিরক্ষা ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রের সাতটি সহযোগিতা চুক্তি। ঠিক হয়েছে, ভারত ২০ কোটি ডলার (১৩৭৭ কোটি টাকার বেশি) ঋণ দেবে রুয়ান্ডার উন্নয়নে।

সে দেশের রাজধানী কিগালিতে হাইকমিশনও খুলবে দিল্লি। গোদান অনুষ্ঠানে মোদী ‘গিরিনকা’ কর্মসূচির ভূয়সী প্রশংসা করে জানান, গ্রামের অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য গরুকে এতটা গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে জানলে ভারতবাসীও খুশি হবেন। ভারত এবং রুয়ান্ডার গ্রামীণ জীবনের মধ্যে মিল রয়েছে বলেই মন্তব্য করেন মোদী। তাঁর মতে, এই কর্মসূচি সে দেশের গ্রামগুলির উন্নয়নে বড় ভূমিকা নিতে চলেছে। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর, ‘গিরিনকা’ কর্মসূচিটি শুরু হয়েছে ২০০৬-এ। সমীক্ষা বলছে, ২০১৬-র জুন পর্যন্ত গরিব পরিবারে প্রায় আড়াই লক্ষ গরু বিলি করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: