যাত্রী পরিষেবার সুবিধার্থে এবার এই কাজগুলোই করতে চলেছে ভারতীয় রেলওয়ে

যাত্রী পরিষেবা নিয়ে হাজার একটা অভিযোগের পর রেলমন্ত্রক এবার বড়সড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে। যাত্রীদের সুবিধার জন্য রেলের খোলনলচে বদলে ফেলতে চাইছে রেল কর্তৃপক্ষ এবং সূত্রের মতে এরই অংশ হিসেবে প্রায় ২০০০ টি রেল কামরা বদলে নতুন কামরা আনতে চলেছে রেল যার জন্য বরাদ্দ ধরা হয়েছে প্রায় ৬০০ কোটি টাকা। অনেকে বলতেই পারেন ইমেজ মেকওভারে নেমেছে রেল তবে এই সম্পূর্ণ পরিকল্পনার অন্তর্গত হতে চলেছে প্রায় ৬০০০০ কোচ যার ভেতরের একাধিক নতুন সরঞ্জামে ও সুবিধায় যাত্রীদের আরও উন্নতমানের পরিষেবা দিতে বদ্ধ পরিকর রেল কর্তৃপক্ষ।

সরকারি সূত্রের খবর বেশ কয়েক মাস ধরেই রেলের কামরা নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চালাচ্ছে রেল। যার জেরে সম্প্রতি নর্দার্ন রেলওয়ের বাছাই করা কয়েকটি ট্রেনের স্লিপার কোচের রং আমূল বদলে ফেলা হয়েছে। পাশাপাশি  রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল এবং রেলবোর্ডের চেয়ারম্যান অশ্বিনী লোহানি আগামীদিনে ট্রেনের কোচ নিয়ে আরও পরীক্ষানিরিক্ষার পক্ষে। নতুন পরিবর্তনে স্রেফ কোচের রং বদলই নয় সাথে সাথে ট্রে-টেবিল, চার্জিং পয়েন্ট, সিট কভার, টয়লেটে নতুন ট্যাপ সহ অন্যান্য সুবিধা পাবেন যাত্রীরা৷ কোচ গুলিকে অত্যাধুনিক সুবিধে সম্বলিত গেজেট দিয়ে ঢেলে সাজাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল।

মান্ধাতার আমলে টয়লেট বদলে বায়োটয়লেটের প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছিল আগে এবার পরিবেশ বান্ধব টয়লেট পুরোপুরি চালু করতে পারবে কিনা তা না জানালেও রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ইতিমধ্যেই দেশব্যাপী ‘স্বচ্ছ ভারত’ প্রস্তাবনার সাথে সাযুজ্য রেখে রেল ৩৭ হাজার বগিতে বায়ো টয়লেট চালু করেছে। ২০১৯ সালের মধ্যে এই প্রকল্প শেষ করতে চায় রেল। সেজন্য আগামী তিন বছরের মধ্যে ৫৫ হাজার রেল বগিতে বায়ো টয়লেট বসানো হবে। তবে এবার বায়ো টয়লেটের পাশাপাশি নতুনভাবে তৈরি কামরা গুলির টয়লেটে নতুন ধরনের এক্সেসরি বসাতেও চায় রেল। রেলের পদস্থ আধিকারিকদের মতে এই প্রকল্প সম্পূর্ণ হলে রেলের কোচ এবং কামরাগুলির গড় আয়ু অনেকটাই বেড়ে যাবে এবং যাত্রী পরিষেবারও উন্নতি হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: