২০০৮ সালে তনুশ্রীর সাথে ঠিক কি হয়েছিলো? এবার সামনে এলো ভিডিও

নানা পাটেকার বনাম তনুশ্রী দত্ত। এখন এটাই খবরের শিরোনামে। প্রশ্ন দুটি। নানা মিথ্যে বলছে! নাকি সত্যি বলছেন নায়িকা। এসবের মাঝে সামনে এসেছে একটি ভিডিও। যা দেখে রীতিমতো চমকে যাবেন আপনি। সম্প্রতি ‘হর্ন ওকে প্লিস’-এর একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে রয়েছে সেদিনের কিছু ফুটেজ। রয়েছেন নানা পাঠেকর, গণেশ আচার্য এবং তনুশ্রী দত্ত। শুরুতে দেখা যায়, তনুশ্রী দত্ত রিহার্সাল শুরু করলে, নানা পাঠেকর তার মধ্যে বাধা দেন। সঙ্গে সঙ্গে সেট ছেড়ে সেখান থেকে সরে যান বাঙালি অভিনেত্রী। তনুশ্রী সেট থেকে সরে যাওয়ায় বেশ কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ হয়ে যায় শুটিং।

এরপর ফের রিহার্সালের জন্য সেটে ফিরে আসেন তনুশ্রী দত্ত। কিন্তু, নানা পাঠেকরের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করতে তিনি যে খুব একটা স্বচ্ছন্দ ছিলেন না, তা এই ভিডিও থেকেই স্পষ্ট। তনুশ্রীর কথায়,

‘‘সেদিন ওই ব্যক্তি অসভ্যতার সমস্ত সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছিলেন। আমাকে জড়িয়ে ধরে অসভ্যতা করছিলেন। তার পর কোরিওগ্রাফারদের আমাকে ভাল করে নাচ শেখাতে বলছিলেন। আমার সঙ্গে একটা অন্তরঙ্গ দৃশ্যেও অভিনয় অবধি করতে চাইছিলেন তিনি।’’


আসলে সেটে সেই অভিনেতার থাকার কোনও কথাই ছিল না বলে জানালেন তনুশ্রী। কারণ, তার সঙ্গে ছবির প্রযোজকদের একটি সোলো নাচের দৃশ্যের কথাই হয়েছিল। কন্ট্র্যাক্টও হয়েছিল সেই মর্মেই। তনুশ্রী বললেন,

‘‘আমি বিষয়টা জানা মাত্রই পরিষ্কার মুখের উপর না করে দিই। কারণ ওরকম একটা মানুষের সঙ্গে ইন্টিমেট ডান্স স্টেপ করাটা অসহ্যকর হয়ে উঠত।’’

উল্টোদিকে আবার, পরিচালক রাকেশ সারাঙ্গের অভিযোগ, বিগ বসের কারণে এসব অভিযোগ করছেন তনুশ্রী দত্ত। তাঁর কথায়,

”ইন্টারনেটে নিজেদের সেক্সের ভিডিও দিচ্ছে মেয়েরা। এটাই হচ্ছে ইন্ডাস্ট্রিতে। প্রচারের জন্য জামাকাপড় খুলছে অনেকে। তারা মনে করছে, নাম খারাপ হলেও প্রচার তো মিলবে”।

এমনকি পুলিসে না গিয়ে কেন তনুশ্রীর সংবাদমাধ্যমে অভিযোগ করছেন, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন রাকেশ। তবে শুধু মুখ বন্দ তাই নয়! সূত্রের খবর, তনুশ্রী মুখ খোলার পর থেকে নাকি শ্যুটিং ফ্লোরে আসছেন না অভিনেতা। এমনকি নানা নাকি ঘর থেকে বার হচ্ছেন না এই কেচ্ছার পর থেকে।

দেখুন সেই ভিডিও-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: