৬-০ গোলে বার্সা লেজেন্ডদের কাছে হার মানলো মোহনবাগান প্রাক্তন একাদশ

মোহনবাগান এবং ভারতীয় ফুটবলের জন্য এক গর্বের দিনই বলা যেতে পারে এই দিনটাকে। তারা মাঠে মুখোমুখি হল বিশ্বসেরা এক দলের বিরুদ্ধে ফ্রেন্ডলি ম্যাচে। খেলোয়াড়রা অবশ্য প্রত্যেকেই প্রাক্তন। তবে প্রত্যেকেই এক-একজন কিংবদন্তি। বার্সেলোনা লেজেন্ড দলের বিরুদ্ধে সল্টলেক যুব-ভারতী ক্রীড়াঙ্গনে আজ খেলতে নেমেছিল মোহন বাগানের প্রাক্তন খেলোয়াড়রা। খেলার ফলাফলটা যে কীরকম হতে পারে তা সকলেই জানত। যাই হোক না কেন, ভারতের মতো ফুটবলে পিছিয়ে পরা এক দেশের ক্লাবের সঙ্গে স্পেনের সেরা দলগুলির মধ্যে একটির তুলনা করাটাও বোকামোই হবে।

মোহনবাগানের একাদশে ছিলেন বিশ্বনাথ মণ্ডল, রহিম নবি, গৌতম ঘোষ প্রমুখরা। বার্সেলোনা লেজেন্ডের হয়ে মাঠে নামেন এডমিলসন, জোফ্রে, স্যাভিওলার মতো প্রাক্তনরা, যাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা আইএসএলও খেলে গেছেন এখানে।

ম্যাচ শুরুর প্রথম কয়েক মিনিটেই প্রথম আক্রমণটা করে মোহনবাগান। রহিম নবি গোল পোস্টের ডান দিক থেকে ডান পায়ে শট চালান ফার্স্ট পোস্টে, যা বার্সা লেজেন্ডের গোলকিপারকে ঝাপিয়ে বাঁচাতে হয়। এটাই ছিল মোহনবাগানের আজকের দিনের সেরা খেলাটা। এরপর থেকে বার্সেলোনা লেজেন্ডরা খেলাটা ধরে নিলে মোহনবাগান বার্সার গোলপোস্টের কাছে যাওয়া তো দুরের কথা, পায়ে বলটাও খুব কম স্ম্যের জন্যই পেয়েছে। শেষমেশ এই খেলার ফলাফল যা গিয়ে দাঁড়ায়, তা হলো বার্সেলোনা লেজেন্ডস ৬ – মোহনবাগান ০।

বা র্সার হয়ে প্রথম গোলটা করলেন প্রাক্তন আর্জেন্টাইন স্যাভিওলা। নিজের কেরিয়ারে বা র্সার হয়ে অনেক কিছু তো জিতেছেনই, তার সঙ্গে তাঁর ঝুলিতে রয়েছে আর্জেন্টিনার সঙ্গে জেতা অলিম্পিকে স্বর্ণ-পদক। পরের গোলটা করেন স্প্যানিশ প্রাক্তন গার্সিয়া। প্রথম অর্ধ শেষ হতে হতে আরও একটা গোল করে বসলেন ৪৩ মিনিটে ল্যান্ডি। তবে দ্বিতীয়ার্ধেঅ থামেনি গোলের বন্যা। জোড়া গোল করেন ফিনল্যান্ডের লিটম্যানেন। গোল করেন আইএসএল-এ এটিকে-তে খেলে যাওয়া জোফ্রে।

সব মিলিয়ে মোহনবাগানের প্রাক্তন একাদশ ম্যাচের কোনও সময়ই দাঁড়াতে পারেনি বার্সা লেজেন্ডদের সামনে। এটা ঠিক যে বার্সেলোনার মতো ক্লাবের প্রাক্তনদের সঙ্গে এমন এক ম্যাচে যোগ দিতে পারাটাও একটা গর্বের ব্যাপার। তবে খেলায় একটু যদি উজ্জ্বল হতো বাগান একাদশ, তবে হয়তো দর্শক রাও কিছুটা গর্ব নিয়ে স্টেডিয়াম ছাড়তে পারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: