রাজ্যে বিজেপি নিয়ে আসছে তাদের নতুন কাগজ, সম্পাদক কে জানেন?

মুকুল রায়ের উদ্যোগে রাজ্য বিজেপির বড় খবর। সিপিএমের মুখপত্র ‘গণশক্তি’-র মত বিজেপিও বাংলায় তাদের প্রথম দৈনিক সংবাদপত্র আনতে চলেছে। এর আগে তৃণমূলের সাপ্তাহিক মুখপত্র ‘জাগো বাংলা’-র পিছনেও আসল মানুষটাই ছিলেন মুকুল। ২০১১ বিধানসভা ভোটের আগে প্রতিদিন-এর জনপ্রিয় সংবাদপত্রকেও তৃণমূলের হয়ে বলার পিছনে তাঁর ভূমিকা ছিলেন। মুকুল রায় আসলে বারবার বলেন, মিডিয়াকে হাতে নিলেন অর্ধেক কাজ হয়ে যায়, আর অর্ধেক কাজ হয় মানুষের পাশে থাকলে।

আগামী ২৯ মার্চ কলামন্দির অডিটোরিয়ামে একটি সংবাদপত্রের আনুষ্ঠানিক সূচনার কথা এদিন ঘোষণা করেছেন মুকুল রায়। এমনকী শোনা যাচ্ছে মুকুল রায়ের উদ্যোগে পঞ্চায়েত ভোটের আগে টিভি চ্যানেলও আনতে পারে বিজেপি। প্রসঙ্গত, গত বছর নভেম্বরের শুরুতেই নয়াদিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে গিয়ে দলবদল করেন মুকুল রায়। তারপর রানি রাসমনি রোডের সভায় ঝোড়ো ইনিংসও খেলেন তৃণমূলের একদা সেকেন্ড ইন কম্যান্ড। ইতিমধ্যে গোটা রাজ্য চষে ফেলেছেন মুকুল। এবার নিজের কাজের তালিকাই বই আকারে অমিত শাহকে দিয়ে এলেন তিনি।

মুকুল রায়ের পারফরম্যান্সের রিপোর্টে হতচকিত রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বও। কারণ, এমন রিপোর্ট যে করা যায়, তা রাজ্যের বিজেপি নেতারা কোনওদিন ভাবতে পারেননি। কিন্তু, মুকুল রায় মাটিতে মিশে রাজনীতি করার পাশাপাশি কর্পোরেট জগতেও সাবলীল। তারই ছাপ রয়েছে বইয়ে।

এদিকে, তিনি আসার পর বিজেপিতে এসে কী করেছেন সেই কাজ বোঝাতে অমিত শাহকে একটি বই লিখে পাঠালেন মুকুল রায়। নিজের কাজের ফিরিস্ত দিয়ে এলেন অমিত শাহকে। তাও আবার রীতিমতো বই ছাপিয়ে। ইতিমধ্যেই পঞ্চায়েত নির্বাচনের দায়িত্ব মুকুল রায়ের কাঁধে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ। রাজ্যের কোনও বিজেপি নেতা ভাবতেই পারেননি, চার মাসে আগে দলে এসে এত বড় দায়িত্ব পেয়ে যাবেন মুকুল রায়!

গত সাড়ে চার মাসে তিনি কী করেছেন, তার ফিরিস্তিই রয়েছে ওই বইয়ে। প্রচ্ছদে রয়েছে মুকুলের সঙ্গে রয়েছে অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদী, কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও দিলীপ ঘোষের ছবি।নীচে লেখা, Journey started, Taken an Oath…To Change Bengal (সফর শুরু হয়েছিল.. বাংলায় পরিবর্তনের শপথ নিয়েছিলাম)। প্রতিটি পৃষ্ঠায় ছবি ও তারিখ দিয়ে বর্ণনা করা হয়েছে কোথায় কোথায় প্রচারে গিয়েছিলেন মুকুল রায়। রয়েছে সেখানকার জনসমাগমের ছবিও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: